জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিতরণ ২৪ জুলাই

আপডেট: জুলাই ১২, ২০১৭, ১:২৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আগামী ২৪ জুলাই ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৫’ বিতরণ করা হবে। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) মঞ্জুরুর রহমান রাইজিংবিডিকে এ তথ্য জানিয়েছেন।
মঞ্জুরুর রহমান জানিয়েছেন, আগামী ২৪ জুলাই সোমবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান হবে। পুরস্কার বিতরণের তারিখ গত মাসেই প্রাথমিকভাবে চূড়ান্ত করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এ বিষয়ে সম্মতি দেওয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, অনুষ্ঠান সমন্বয়ের দায়িত্বে থাকবে তথ্য মন্ত্রণালয়। এরই মধ্যে অনুষ্ঠানের কার্ড ছাপানোর কাজ শুরু হয়েছে। আশা করছি, আগামী সপ্তাহ থেকে আমন্ত্রিতদের কার্ড সরবরাহের কাজ শুরু হবে।
প্রসঙ্গত, গত ১৬ মে তথ্য মন্ত্রণালয়ের চলচ্চিত্র অধিশাখা থেকে এ পুরস্কার দেওয়ার বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হয়। প্রজ্ঞাপনে, বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পে গৌরবোজ্জ্বল ও অসাধারণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২৫টি ক্ষেত্রে চলচ্চিত্র শিল্পী ও কলাকুশলীদের ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৫’ দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়।
২০১৫ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার যারা পাচ্ছেন :
আজীবন সম্মাননা : যুগ্মভাবেÍ শাবানা ও ফেরদৌসী রহমান; শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র : যুগ্মভাবেÍবাপজানের বায়োস্কোপ (পরিচালক : মো. রিয়াজুল মওলা রিজু) ও অনিল বাগচীর একদিন (পরিচালক : মোরশেদুল ইসলাম); শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র : একাত্তরের গণহত্যা ও বধ্যভূমি (চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর); শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক : যুগ্মভাবেÍ মো. রিয়াজুল মওলা রিজু (চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ) ও মোরশেদুল ইসলাম (চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন)।
শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (প্রধান চরিত্রে) : যুগ্মভাবেÍশাকিব খান (চলচ্চিত্র : আরো ভালোবাসব তোমায়) ও মাহফুজ আহমেদ (চলচ্চিত্র : জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (প্রধান চরিত্রে) : জয়া আহসান (চলচ্চিত্র : জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (পার্শ্ব চরিত্রে) : গাজী রাকায়েত (চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (পার্শ্ব চরিত্রে) : তমা মির্জা (চলচ্চিত্র : নদীজন); শ্রেষ্ঠ অভিনেতা/অভিনেত্রী খল চরিত্রে : ইরেশ যাকের (চলচ্চিত্র : ছুঁয়ে দিল মন); শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী : যারা যারিব (চলচ্চিত্র : প্রার্থনা); শিশুশিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার : প্রমিয়া রহমান (চলচ্চিত্র : প্রার্থনা)।
শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক : সানী জুবায়ের (চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ গায়ক : যুগ্মভাবেÍ সুবীর নন্দী (তোমারে ছাড়িতে বন্ধু, চলচ্চিত্র : মহুয়া সুন্দরী) ও এসআই টুটুল (উথাল পাতাল জোয়ার, চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ গায়িকা : প্রিয়াংকা গোপ (আমার সুখ সে তো, চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ গীতিকার : আমিরুল ইসলাম (উথাল পাতাল জোয়ার, চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ সুরকার : এস আই টুটুল (উথাল পাতাল জোয়ার, চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ)।
শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার : মাসুম রেজা (বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার : যুগ্মভাবে- মাসুম রেজা (বাপজানের বায়োস্কোপ) ও মো. রিয়াজুল মওলা রিজু (বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা : হুমায়ূন আহমেদ (অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ সম্পাদক : মেহেদী রনি (বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক : সামুরাই মারুফ (জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক : মাহফুজুর রহমান খান (পদ্ম পাতার জল); শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক : রতন কুমার পাল (জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জা : মুসকান সুমাইকা (পদ্ম পাতার জল) এবং শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান : শফিক (জালালের গল্প)।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ