বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

জামালের চোখে শিরোপার স্বপ্ন

আপডেট: January 15, 2020, 1:03 am

সোনার দেশ ডেস্ক


সংবাদ সম্মেলনে কোচ জেমি ডের সঙ্গে অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া-সংগৃহীত

বাফুফে ভবনে সংবাদ সম্মেলন শেষে জামাল ভূঁইয়াকে ঘিরে জটলা। অধিনায়কের কাছে প্রত্যাশা তো থাকবেই! বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবলের প্রথম পাঁচ আসরে শিরোপা ধরা দেয়নি। এবার শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে ‘বিশেষ’ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ স্মরণীয় করে রাখার লক্ষ্য। মিডফিল্ডার জামালের চোখে সামর্থ্যের সেরাটা দিয়ে শিরোপা জয়ের স্বপ্ন।
বুধবার উদ্বোধনী ম্যাচেই বাংলাদেশ মাঠে নামছে। প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফিলিস্তিন। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ফিলিস্তিন অনেক এগিয়ে, ১০৬ নম্বরে। অন্যদিকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৭।
র‌্যাঙ্কিংয়ে পিছিয়ে থাকলেও জামাল আত্মবিশ্বাসী। ঘরের মাঠে শুরুটা ভালো করতে চান লাল-সবুজ দলের অধিনায়ক। মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি ভালো। আমরা শিরোপা জিততে চাই। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর টুর্নামেন্ট জিততে পারলে দারুণ হবে। নিজের জন্যও খেলতে হবে, তাহলেই সাফল্য আসবে।’
প্রতিপক্ষ ফিলিস্তিন সম্পর্কে তার মূল্যায়ন, ‘তারা যে কঠিন প্রতিপক্ষ তাতে কোনও সন্দেহ নেই। তবে আমরা জেতার জন্যই মাঠে নামবো। তাহলে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারবো।’
বাংলাদেশ দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স হতাশাজনক। এসএ গেমসে প্রায় জাতীয় দল নিয়ে তৃতীয় হয়েছিল। সেই হতাশা কাটানোর সুযোগ এবার। অধিনায়কের আশা, ‘এসএ গেমসে আমাদের পারফরম্যান্স ভালো হয়নি। আমরা ঠিকমতো খেলতে পারিনি। এবার ঘুরে দাঁড়ানোর ভালো সুযোগ এসেছে। আশা করি, ভালো করবো। আর ভালো করতে পারলে বলতে পারবো এসএ গেমসের পারফরম্যান্স ছিল ভুল।’
দলে অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার নাবীব নেওয়াজ জীবন নেই। টুটুল হোসেন বাদশা আর বিপলু আহমেদও ছিটকে পড়েছেন। জামালের অবশ্য সবার ওপরেই আস্থা আছে, ‘যারা সুযোগ পেয়েছে তারা সবাই পরীক্ষিত। তারা কেউই খারাপ করবে না।’ সমর্থকদের উদ্দেশে তার আহ্বান, ‘দর্শক মাঠে এলে খেলতে ভালো লাগে, অনুপ্রেরণা পাওয়া যায়। আমি সবাইকে মাঠে এসে খেলা দেখার অনুরোধ করছি।’
সংবাদ সম্মেলনে ফিলিস্তিনের মিডফিল্ডার মোহাম্মদ দারউইস বলেছেন, ‘এই প্রথম বাংলাদেশে এসেছি। গতবার আমাদের দল চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। এবারও ট্রফি নিয়ে বাড়ি ফিরতে চাই।’