জামায়াতের দশ নেতার সাত দিনের রিমান্ড আবেদন

আপডেট: জুলাই ১০, ২০১৭, ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


রাজশাহীর বাঘায় মসজিদে গোপন বৈঠকে নাশকতার পরিকল্পনা করার সময়ে উপজেলা চেয়ারম্যানসহ জামায়াতের ১০ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন চেয়ে গতকাল রোববার সকালে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার আহমদপুর জামে মসজিদে গোপন বৈঠক করা অবস্থায় তাদের পুলিশ আটক করে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার আসর নামাজ শেষে বাজুবাঘা ইউনিয়নের আহমদপুর গ্রামের জামে মসজিদে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা জামায়াতের আমির মাওলানা জিন্নাত আলী, চারঘাট উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা পূর্ব অঞ্চল জামায়াতের সেক্রেটারি নাজমুল হক, বাঘা পৌর জামায়াতের আমির সাইফুল ইসলাম, বাউসা ইউনিয়ন জামায়াতের সভাপতি মজিবর রহমান, বাজুবাঘা ইউনিয়ন জামায়াতের সভাপতি ওয়াজেদ আলী, আড়ানী ইউনিয়ন জামায়াতের সভাপতি সামসুল হক, বাঘা পৌর জামায়াতের সাবেক সভাপতি সেকেন্দার রহমান, জামায়াত নেতা আহমেদ আলী, মোয়াজ্জেম হোসেন, রফিকুল ইসলামসহ ১০ জন গোপন বৈঠক করছিল। এসময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে এই মসজিদে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। বাঘা থানার ওসি তদন্ত হীরেন্দ্রনাথ প্রামানিক বাদি হয়ে নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।
এ বিষয়ে বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলী মাহমুদ জানান, গোপন সংবাদের ভিক্তিতে বৈঠক করা অবস্থায় জিহাদি বইসহ জামায়াত নেতাদের আটক করা হয়েছে। সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন চেয়ে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ