জামায়াত সেক্রেটারি গোলাম পরওয়ার রিমান্ডে

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২২, ১০:৩৯ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


রাজধানীর পল্টন থানায় দায়ের করা নাশকতাসহ বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলায় জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল মিয়া গোলাম পরওয়ারের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।
সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূর রিমান্ডের এ আদেশ দেন।
সিমএম আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর আজাদ রহমান এ তথ্য জানান।

এর আগে পুলিশ তার ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। আবেদনে বলা হয়, গত বছর ২৬ মার্চ বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ মামলার আসামি মাওলানা মামুনুল হক জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের ভিতরে অজ্ঞাতনামা জামায়াত-শিবির, বিএনপি, জঙ্গি, মৌলবাদী নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হয়ে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে দেশব্যাপী গুজব সৃষ্টির মাধ্যমে সরকার পতনের লক্ষ্যে হামলার পরিকল্পনা করেন।

ফলশ্রুতিতে মামুনুল হকের নির্দেশনায় আসামিরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চট্টগ্রামের হাটহাজারীসহ সারা দেশে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করে সংবিধান লঙ্ঘন, রাষ্ট্রীয়সম্পদ ধ্বংস, মসজিদ ভাঙচুর করে দেশকে অস্থিতিশীল, অকার্যকর, মৌলবাদী রাষ্ট্রে পরিণত করার মাধ্যমে অবৈধ পথে সরকার উৎখাতের হীন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে মর্মে প্রতীয়মান হয়। গোলাম পরওয়ার মামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িত মর্মে একাধিক সূত্রে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে।

প্রাথমিক তদন্তে এ আসামি এজাহারে বর্ণিত ঘটনার সঙ্গে জড়িত মর্মে প্রকাশ পায়। তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি, অবৈধ পথে সরকার উৎখাতের হীন ষড়যন্ত্রের জন্য অর্থ যোগানদাতা ও উসকানিদাতাদের শনাক্ত করে গ্রেফতারসহ ঘটনার সময় ব্যবহৃত রিভলবার ও অস্ত্র এবং তাদের কাছে থাকা ককটেল/বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার করা সম্ভব রয়েছে।

আসামিপক্ষে এস এম কামাল উদ্দিন রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষে আজাদ রহমান এর বিরোধিতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তার তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

মামলার বিবরণী থেকে জানা যায়, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে জাতীয় প্যারেডগ্রাউন্ডে দেশি-বিদেশি সরকার প্রধান-রাষ্ট্রপ্রধানদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিকে বানচাল করার ও ঢাকাসহ সারা দেশে ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টির পরিকল্পনা ও ষড়যন্ত্র করে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত বছর ২৬ মার্চ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মুসল্লিদের ওপর হামলাসহ নাশকতার অভিযোগে পল্টন থানার পুলিশ কর্মকর্তা খন্দকার আরিফ-উজ-জামান মামলাটি দায়ের করেন।
তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ