জুয়া খেলার দায়ে তিন কারারক্ষীসহ গ্রেফতার ১৪

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৭, ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



জুয়া খেলার অপরাধে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারের তিন কারারক্ষীসহ ১৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার দিনগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর ডিঙাডোবা এলাকা থেকে রাজপাড়া থানা পুলিশ তাদের আটক করে। পরে গতকাল রোববার দুপুরে তাদের আদালতে তোলা হয়। এরপরই বিষয়টি জানাজানি হয়।
পুলিশ বলছে, ১৪ জুয়াড়িকে আটক করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। পরে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারেও পাঠানো হয়েছে। কিন্তু ওই ১৪ জনের মধ্যে তিনজন কারারক্ষী আছেন কী না তা পুলিশ জানে না।
তবে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার হালিমা খাতুন স্বীকার করেছেন, ১৪ জনের মধ্যে তিনজন কারারক্ষী। তিনি তাদের পরিচয়ও নিশ্চিত করেছেন। সিনিয়র জেল সুপারের দেয়া তথ্যমতে ওই তিন কারারক্ষী হলেন, মানিক হোসেন, হাবিব আহমেদ ও মিল্টন হোসেন।
হালিমা খাতুন বলেন, ‘কেউ আইনের ঊর্ধ্বে না। আইন সবার জন্যই সমান। ওই তিন কারারক্ষীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অধিদফতরে সুপারিশ করা হবে।’
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রাজপাড়া থানা পুলিশের একটি সূত্র দাবি করেছে, রাতে ১৪ জনকে আটকের পর তিন কারারক্ষীদের ছাড়িয়ে নিতে কারাগারের পক্ষ থেকে জোর তৎপরতা চালানো হয়। তবে শেষ পর্যন্ত পুলিশ তাদের ছাড়েনি।
জুয়ার আসরের ওই অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) রাজপাড়া জোনের সহকারী কমিশনার সাব্বির আহমেদ সরফরাজ। তিনি বলেন, ডিঙাডোবা এলাকায় মাঠের ভেতর একটি ঘর বানিয়ে সেখানে জুয়ার আসর বসতো। এ নিয়ে স্থানীয়রা পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছিলেন।
ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাতে সেখানে অভিযান চালিয়ে জুয়া খেলা অবস্থায় ১৪ জনকে আটক করা হয়। পরে তাদের নামে মামলা করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে ওই ১৪ জনের মধ্যে তিনজন কারারক্ষী কী না তা তিনি জানেন না বলে দাবি করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ