জুয়া বিরোধী অভিযান ঈশ্বরদীর ক্লাবে ক্লাবে তালা

আপডেট: অক্টোবর ২, ২০১৯, ১:২৭ পূর্বাহ্ণ

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি


ঈশ্বরদীতে সাম্প্রতিক জুয়া ও মাদক বিরোধী অভিযানে শহর ও শহরতলীসহ গ্রামে গ্রামে বিভিন্ন ক্লাবের দরজায় দরজায় এখন তালা ঝুলছে। ‘সাঁঝবাতি’ দেওয়ার জন্য দু-একটি ক্লাব কদাচিৎ খোলা হলেও তা বন্ধ করে সকাল সকাল বাড়ি ফিরছেন ক্লাবে নিয়মিত আসা যাওয়া করা লোকজন। উঠতি বয়সি বখে যাওয়া তরুণ-যুবকরা যারা কয়েকদিন আগেও ক্ষমতার দাপটে রাস্ত-ঘাট-ক্লাব-মাঠ চষে বেড়িয়েছে তাদেরও ক্লাবের আশেপাশে খুব একটা দেখা যাচ্ছেনা। পুলিশের অভিযানে প্রায় ২০ জনকে জুয়া খেলার সময় জুয়ার সরঞ্জাম ও নগদ টাকাসহ গ্রেফতারের পর থেকে গ্রেফতার আতঙ্কে জুয়াড়িরা জুয়া খেলা বন্ধ করে দিয়েছেন বলেও খবর পাওয়া গেছে। অবসরে যারা সন্ধ্যার পর বিভিন্ন ক্লাবে বসে খেলা-ধুলা করে সময় কাটাতেন তারাও আর সহসা ক্লাবমুখি হচ্ছেন না। ঈশ্বরদীর বিভিন্ন এলাকায় গ্যাং কালচারে জড়িত বখাটেদেরও এখন প্রকাশ্যে দেখা যাচ্ছেনা।
স্থানীয়রা জানান, পুলিশের সাম্প্রতিক এই অভিযানে জুয়া-মাদক-গ্যাং কালচার ও সন্ত্রাসী কাজে জড়িতদের রাতের ঘুম হারাম হলেও ঈশ্বরদীর সাধারণ মানুষ খুশি হয়েছেন। স্থানীয়রা জানান, তারা এখন স্বস্তিতে আছেন। জুয়া ও মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদেরও ‘আপাতত’ প্রকাশ্যে অবাধে বিচরণ করতে দেখা যাচ্ছেনা।
এসব বিষয়ে ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, পুলিশের এই অভিযান অব্যাহত রয়েছে। যে কোন সময় যে কোন এলাকায় হঠাৎ অভিযানে যাবে পুলিশ। এসব অভিযানে যেই গ্রেফতার হোক না কেন কারো সুপারিশ আমলে নেবেনা পুলিশ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ