জেএমবির শীর্ষ নেতা মাহফুজ ও খাইরুলকে খুঁজছে পুলিশ

আপডেট: মে ১৪, ২০১৭, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ অফিস


চাঁপাইনবাবগঞ্জে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির শীর্ষ নেতা মাহফুজ ও খাইরুলকে খুঁজছে পুলিশ। তার সন্ধানে বিভিন্ন এলাকায় চলছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযান। জেলা পুলিশের খাতায় থাকা টপ ওয়ানটেন্ড এই দুই জঙ্গি নেতাকে ধরতে পারলে চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ এর আশেপাশের কয়েকটি জেলায় জেএমবির সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড ও অস্ত্রের মজুদ সম্পর্কে বড় ধরনের তথ্য পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন পুলিশ কর্মকর্তারা।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গত বুধ ও বৃহস্পতিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর, নাচোল ও শিবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে জঙ্গিবিরোধী অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানের প্রথমদিনে বুধবার সকালে নাচোল উপজেলার গুঠইল গ্রাম থেকে সাড়ে চার কেজি গানপাউডার ও ২২টি জিহাদি বই জেএমবি নেতা হারুন অর রশিদ ও তার তিন সহযোগী কামাল উদ্দিন, নাসিম রেজা ও ফিরোজকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত জেএমবি নেতা হারুন ও তার সহযোগীদের তথ্যের ভিত্তিতেই রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার বেনিপুরের জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পায় পুলিশ। বুধবার রাতে সর্বপ্রথম চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশ ওই জঙ্গি আস্তানাটি ঘিরে ফেলে। পরেরদিন বৃহস্পতিবার ওই জঙ্গি আস্তানায় পুলিশ অপারেশন ‘সান ডেভিল’ অভিযান চালালে এক ফায়ার সার্ভিস কর্মীসহ পাঁচ জঙ্গি মারা যায়।
এছাড়া নাচোলে গ্রেফতারকৃত জঙ্গিদের কাছ থেকেই চাঁপাইনবাবগঞ্জ অঞ্চলে জেএমবির শীর্ষ নেতার নাম হিসেবে উঠে এসেছে মাহফুজের নাম। মাহফুজের পরিচয় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য না থাকলেও তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ অঞ্চলে জেএমবিকে সুসংগঠিত করছে বলে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে।
জানতে চাইলে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম জানান, জঙ্গি সংগঠন জেএমবির প্রথম শ্রেণির নেতা মাহফুজকে ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে। তাকে ধরতে পারলে এই অঞ্চলে জেএমবির তৎপরতা সম্পর্কে আরো অনেক কিছু জানা যাবে বলে মনে করেন তিনি।
এদিকে সদর উপজেলার দেবীনগর ফাটাপাড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা জেএমবি সদস্য হাকিমের ভাই খাইরুলকেও খুঁজছে পুলিশ। এই খাইরুল জেএমবির অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহদাতা বলে জানিয়েছে পুলিশ। ভারত থেকে আসা জেএমবির অস্ত্র ও বিস্ফোরকের চালান খাইরুলের মাধ্যমেই দেশের বিভিন্ন স্থানে পৌঁছে যায় বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। এমনকি ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্রের চালান জঙ্গিদের কাছে পৌঁছে দেয়ার সঙ্গেও খাইরুলের নাম উঠে এসেছে।
এ বিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম জানান, জেএমবির অস্ত্র সরবরাহদাতা খাইরুল চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার দেবীনগর ফাটাপাড়ার গুঠুর ছেলে। খাইরুলকে গ্রেফতার করতে পারলে জেএমবির অস্ত্র ও বিস্ফোরকের মজুত সম্পর্কে জানা যাবে বলে জানান তিনি।