জেগে উঠেছে ৪৮ হাজার বছর আগের ‘জোম্বি’ ভাইরাস! নয়া অতিমারীর আশঙ্কায় বিজ্ঞানীরা

আপডেট: নভেম্বর ৩০, ২০২২, ৮:২৯ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


অতিমারীর দাপট কমেছে। করোনা ভাইরাসের দৌরাত্ম্য এখন অনেকটাই ফিকে। কিন্তু স্বস্তির বুঝি উপায় নেই! এবার রাশিয়ার বরফে ঢাকা হ্রদের তলা থেকে উদ্ধার হল ৪৮ হাজার ৫০০ বছর আগেকার ভাইরাস। এই ‘জোম্বি’ ভাইরাসকে পুনরুজ্জীবিত করে উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা। দেখা গিয়েছে, ভাইরাসগুলি এখনও সংক্রমণ ছড়াতে সক্ষম। তাঁদের আশঙ্কা, এই ধরনের ভাইরাস থেকেই হয়তো নতুন কোনও অতিমারীর জন্ম হতে পারে।

কী বলছেন ফ্রান্সের ওই বিজ্ঞানীরা? তাঁদের মতে, মানুষ, পশু কিংবা উদ্ভিদের মধ্যে অনেক বেশি সংক্রামক ও ভয়ংকর অসুখ ছড়াতে পারে এই ধরনের অজানা প্রাচীন ভাইরাস। বিশ্ব ঊষ্ণায়নের ধাক্কায় বরফ গলছে অনেক দিন ধরেই। আর এর ধাক্কায় পার্মাফ্রস্টও গলছে। পার্মাফ্রস্ট হল চিরতুষারে ঢাকা রাজ্য। সেই ধরনের বরফের তলায় থাকা ভাইরাস বেরিয়ে এসে বিপদ ডেকে আনতে পারে, এই আশঙ্কা ক্রমেই বেড়েছে। মনে করা হয়, এখানে এমন ভাইরাসও রয়েছে যারা ১০ লক্ষ বছর ধরে সেখানে রয়েছে। এর মধ্যে কোষীয় অণুজীবের পাশাপাশি ভাইরাসও রয়েছে।

আর তেমনই কিছু ‘জোম্বি’ ভাইরাসকে পুনরুজ্জীবিত করেছেন বিজ্ঞানীরা। যার মধ্যে সবচেয়ে পুরনো ভাইরাসটি ৪৮ হাজার ৫০০ বছরের পুরনো। প্যান্ডোভাইরাস ইয়েডোমা নামের ওই ভাইরাসটি অন্য প্রাণীদের সংক্রমিত করার ক্ষমতা রয়েছে। এর আগে ২০১৩ সালে সাইবেরিয়ায় হদিশ মিলেছিল ৩০ হাজার বছরের পুরনো ভাইরাসের। এবারের ভাইরাস আরও প্রাচীন।

গবেষণায় জানা গিয়েছে, সব মিলিয়ে ১৩ ধরনের ভাইরাসের সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ‘সায়েন্স অ্যালার্ট’ জার্নাল সূত্রে তেমনটাই জানা যাচ্ছে। এদের পরীক্ষা করে বিজ্ঞানীরা বুঝতে পেরেছেন এই ধরনের ভাইরাসের ক্ষমতা রয়েছে প্রচ- সংক্রমণ ছড়ানোর। তাঁদের আশঙ্কা, কোভিড অতিমারীর মতো অতিমারী ভবিষ্যতে ঘনঘন দেখা দিতে পারে। এখনও অজানা এই ধরনের ভাইরাসের প্রতিরোধও। সব মিলিয়ে আগামী পৃথিবীতে যে করোনা অতিমারীর থেকেও কঠিন অতিমারী আসতে পারে, এই আশঙ্কা ক্রমেই বাড়ছে। তাছাড়া পার্মাফ্রস্ট উন্মুক্ত হয়ে গিয়ে মিথেনের মতো গ্রিন হাউস গ্যাসও ছড়াতে পারে। সেটাও উদ্বেগের কারণ হতে পারে বলেই মত বিজ্ঞানীদের।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ