জয়পুরহাটে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১,আহত ১৮

আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২০, ১২:৩৮ পূর্বাহ্ণ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি


জয়পুরহাটে ১৬ ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক ২টি সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জন নিহত ও ১৮ জন আহত হয়েছে। গত রোববার বিকেলে হানিফ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস ঢাকা থেকে জয়পুরহাটে ফেরার সময় অতিরিক্ত গতির দরুন একটি ভ্যানকে সাইড দিতে গিয়ে কালাই উপজেলার জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কের সড়াইল নামক স্থানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই জেলার পাঁচবিবি পৌর এলাকার মাতাইশ মহল্লার জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী বানেছা বেগম (৪২) নিহত হয়। আহত হয় ১৫ জন। আহতদের উদ্ধার করে জয়পুরহাট কালাই হাসপাতালে পাঠানো হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত কালাইয়ের আওড়া গ্রামের মো. মনোয়ার হোসেন (২৫) ও জেলা সদরের আবু সাইদ (৪৫) অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে কর্তব্যরত বিশেষজ্ঞ কনসালটেন্সী সার্জেন্ট ডা. মফিউর রহমান ঘটনার রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে পাঠান। অন্যদিকে গত সোমবার সকাল সাড়ে ৮ টার নাগাদ জেলার পাঁচবিবি উপজেলার ধরঞ্জী মোড়ে কুয়াশায় গাড়ী চালনার সতর্কতা না মেনে মটর সাইকেল চালানো মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটলে ধরঞ্জী হাজীপুরের মোটরসাইকল চালক কসাই জাইদুল (৪৫), তার সঙ্গী মুকুল হোসেন (২৮) ও হাবিবপুর ফাজিল মাদ্রাসার আরবী প্রভাষক উত্তর ধরঞ্জীর হাসমত উল্লাহ আহত হন। তাদের জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গুরুতর আহত কসাই জাইদুলের (৪৫) অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে জেলা আধুনিক হাসপাতালে কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার ডা. মাহবুবুল হক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে শজিমেক হাসপাতলে পাঠান। হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের দুর্ঘটনায় কালাই থানার ওসি মো. আবদুল লতিফ খান জানান, অতিরিক্ত গতিতে গাড়ী চালনায় যাত্রীবাহী বাসটির চালককে আসামী করে ইতোমধ্যেই থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। অন্যদিকে পাঁচবিবি থানার ওসি মো. মুনছুর রহমান জানান, ঘটনা সত্য। অভিযোগ পেলে তদন্ত স্বাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। জয়পুরহাট ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন) মো. জমিরুল ইসলাম জানান, অতিরিক্ত কুয়াশায় মোটর সাইকেলের হেড লাইট জ্বালিয়ে রাস্তার বাম ধার ধরে ধীর গতিতে হর্ণ দিতে দিতে গাড়ী চালনা করাটা নিয়ম। এর ব্যতিক্রম করলে যে কোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ