জয়পুরহাটে সন্ত্রাস-নির্যাতনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার উল্টো গ্রেফতারের শিকার সাংবাদ সম্মেলন অভিযোগ

আপডেট: এপ্রিল ২৩, ২০২২, ৯:৪৩ অপরাহ্ণ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি:


জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার সোনামূখী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের কাঁঠালবাড়ি উত্তরপাড়া এলাকার আতোয়ার হোসেন মন্ডল এর বাড়িতে একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মোক্তার হোসেন বিরোধী পক্ষকে অবৈধ ভাবে জমির দখল পাইয়ে দিতে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র সজ্জিত সন্ত্রাসী হামলা চালান।

গত ৬ এপ্রিল সকাল ৮ টা ১০ মিনিটে এ বেপরোয়া হামলায় মারপিট, ভাংচুর ও লুটপাটে নগদ টাকা স্বর্ণালংকার, টিন সহ ৪ লক্ষ ৮০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করা হয়েছে বলে সাংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে অভিযোগে করেন ভুক্তভোগী পরিবার।

জয়পুরহাট জেলা প্রেসক্লাবে শনিবার দুপুর সাংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য আহসান হাবিব উজ্জল লিখিত বক্তব্যে আরও বলেন, সন্ত্রাসীরা হামলা করার পরপরই ৯৯৯ ও আক্কেলপুর থানার ওসি এবং একজন উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাকে জানালেও পুলিশ ঘটনাস্থলে প্রায় দেড় ঘন্টা পর পৌছায় এবং উল্টো অভিযোগকারী নির্যাতনের শিকার আমার পিতা আহত আতোয়ার হোসেন মন্ডল (৬৫) ও মাতা সালমা খাতুনকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় পুলিশ।

গ্রেফতারের পর তাদেরকে অন্য আরো একটি মামলাতে জড়ানো হয়েছে। এছাড়াও এ সন্ত্রাসী ঘটনায় নির্যাতনে ও শ্লীলতাহানিতে আহত হন আমার স্ত্রী ছাবিনা বেগম। এঘটনায় আক্কেলপুর থানা পুলিশ মামলা নিতে অস্বীকৃতি জানালে আমার আমার পিতা আদালতে মামলা দায়ের করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান, বিরোধ পূর্ণ জমির বিষয়ে দুটি মামলায় তারা রায় পেয়েছেন এবং একটি মামলা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন রয়েছে।
এ ব্যাপারে সোনামূখী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোক্তার হোসেন বলেন, সন্ত্রাসী ঘটনার ভাড়াটিয়া হিসেবে দলবল নিয়ে হামলা করার অভিযোগটি সত্য নয়।

এ ব্যাপারে আক্কেলপুর থানার ওসি ছাইদুর রহমান জানান, তিনি সন্ত্রাসী ঘটনার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে বিরোধকারী দুই পক্ষের তিনজনকে গ্রেফতার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছেন এবং বিষয়টির স্থায়ী মিমাংসার একটি উদ্যোগও চলমান রেখেছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ