জয়পুরহাট সীমান্তে বাংলাদেশি কৃষককে কুপিয়ে জখম করেছে ভারতীয় নাগরিক

আপডেট: মার্চ ৭, ২০১৭, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি


জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার কড়িয়া সীমান্তে সুভাষ নামে এক ভারতীয় নাগরিক এক বাংলাদেশি কৃষককে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। গত রোববার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। আহত বাংলাদেশী কৃষক নূরল আমিন পাঁচবিবি উপজেলার কড়িয়া-হাজিপুর গ্রামের মৃত মোজাহার আলীর ছেলে।
আহত নূরল আমিনকে জয়পুরহাট ব্যাটেলিয়নের বিজিবি ও পাঁচবিবি ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা উদ্ধার করে প্রথমে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেন। তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় সন্ধ্যায় তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীদের উদ্ধৃতি দিয়ে পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আশরাফুল ইসলাম জানান, হামলাকারী ভারতীয় নাগরিকের বাড়ি ভারতের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার মথুরাপুর থানার লকমী গ্রামে। বাংলাদেশ ও ভারতীয় সীমান্তের ২৭৮/২৯ পিলার সংলগ্ন এলাকায় নিজ জমিতে সেচ দিতে যান নূরল ইসলাম। এর কিছু দূরে হামলাকারী ভারতীয় নাগরিক সুভাষ অবস্থান করে নূরুল ইসলাম কটাক্ষ করে গালিগালাজ করতে থাকে। এতে নূরল প্রতিবাদ করলে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে সুভাষ বাংলাদেশ সীমান্তে ঢুকে পরে হাসুয়া জাতীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কোপাতে থাকে। তার আর্তচিৎকারে বিজিবি সদস্যরা এগিয়ে এসে নূরল ইসলামকে উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেন। পরে বিজিবি ও ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে ওসি জানান।
জয়পুরহাট ২০ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমতিয়াজ চৌধূরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার পর পরই পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে অভিযোগ দিলে বিএসএফ সদস্যরা হামলাকারী সুভাষকে আটক করে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ