ঝরে পড়া আম কেনা-বিক্রিতে ব্যস্ত চারঘাটের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা

আপডেট: এপ্রিল ৩০, ২০১৭, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

নজরুল ইসলাম বাচ্চু, চারঘাট


ঝরে পড়া আম কেনা-বিক্রি করছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা

ঝরে পড়া কাঁচা আম নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন রাজশাহীর চারঘাটের ক্ষুদ্র আম ব্যবসায়ীরা। গত এক সপ্তায় কয়েক দফা ছোট ঝড়সহ প্রতিদিন বাতাসে ঝরে পড়া আম নিয়েই তাদের সুদিন চলছে। বর্তমানে এ আমের বাজার ভালো বলেও জানান তারা।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন সকাল হলে গ্রামে গ্রামে ফেরি করে আম ক্রয় এরপর বাজারে ক্ষুদ্র পরিসরে বিক্রি এখন তাদের প্রতিদিনের চিত্র। প্রতিবছর আমের এই মৌসুমে এ অঞ্চলের ক্ষুদ্র প্রান্তিক আম ব্যবসায়ীরা ব্যস্ত সময় কাটান ঝরে পড়া আম নিয়ে। এখানে বড়-বড় ব্যবসায়ীরা চুক্তিমূল্যে বাগান কিনে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরে আম চালান করলেও বসে থাকে না ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। তারা গ্রামে-গ্রামে আম ফেরি করে ক্রয় করেন। এরপর নিকটতম বাজার ও স্বল্প পরিসরে বিভিন্ন শহরে তা বিক্রি করেন।
এ সকল ব্যবসায়ীরা বলছেন, বর্তমানে আমের বাজার ভালো। এ কারণে তাদের লাভও ভালো হচ্ছে। ক্ষুদ ব্যবসায়ী আবদুল কুদ্দুস জানালেন, তিনি ভ্যানে করে প্রতিদিন বিভিন্ন গ্রামে ঘুরে ঝড় কিংবা বাতাসে ঝরে পড়া কাঁচা আম কিনেন। তার মতো এখানে আরো অনেকেই এই ব্যবসা করেন। যারা প্রত্যেকেই বিভিন্ন এলাকার বাগান মালিক ও বাগান গ্রহরীদের বাড়ি-বাড়ি ঘুরে এসব ঝরে পড়া আম ক্রয় করে থাকেন। এরপর সেগুলো উপজেলা সদরসহ বাইরে পাশ্ববর্তী বিভিন্ন শহরে নিয়ে বিক্রি করেন।
উপজেলার নন্দনগাছী ও কাকরামারি গ্রামের হবিবার রহমান হবি ও আনিসুর জানান, বর্তমানে বাগান মালিকদের বাড়িতে যে আম ৩-৪ টাকা কেজি তারা সেই আমই বাজারে এনে বিক্রি করছেন ৫ থেকে ৭ টাকা কেজি দরে। এমনিভাবে তিনি প্রতিদিন গড়ে ১শ কেজির উপরে আম বিক্রি করে থাকেন বলে জানান।
চারঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু জাফর মোহাম্মদ সাদেক জানান, এখানে প্রতি আম মৌসুমে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা আম কেনাবেচা করে অনেক লাভবান হন। তিনি বলেন, এ অঞ্চলে যারা চুক্তিভিত্তিক আমের বাগান কিনে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরে ট্রাকযোগে চালান দেয় তাদেরকে স্থানীয় ভাষায় আমের ব্যাপারী বলা হয়। অপরদিকে যারা বাড়ি-বাড়ি ঘুরে স্বল্প পুঁজি খাটিয়ে গাছ থেকে ঝরে পড়া কাঁচা-পাকা আম কিনে হাটে বাজারে বিক্রি করে তাদের বলা হয় হকার। বাস্তবে এরা হকার নয়, তারা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। চেষ্টা করলে এরাও একদিন বড় ব্যাপারী হতে সক্ষম হবে।