টাকা দিয়ে গোল কিনবেন গার্দিওলা

আপডেট: মে ৭, ২০১৭, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



মৌসুমের শুরুতে রীতিমতো শোরগোল। ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নিয়ে পেপ গার্দিওলা যেন ফোটাচ্ছিলেন সুন্দর ফুটবলের ফুল। পাসিং ফুটবলের সঙ্গে ইংলিশ ফুটবলের পরিচয় ঘটিয়ে সবাইকে আনন্দে ভাসিয়েছিলেন গার্দিওলা। তবে ‘সুন্দর ফুটবল’ দিয়ে খুব লাভ হয়নি গার্দিওলার। মৌসুমটা একেবারেই ভালো কাটেনি ম্যানচেস্টার সিটির। আক্রমণভাগের ব্যর্থতায় এবারের লিগ শিরোপাটা হাতছাড়া হচ্ছে সিটির। এই অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে গার্দিওলা আসছে মৌসুমে গোল ‘কিনতে’ চান! গোল কিনবেন গার্দিওলা! ব্যাপার অনেকটা তেমনই। গোল কাগজে-কলমে হয়তো ‘কেনা’ যাবে না, কিন্তু গোল করার খেলোয়াড় তো কেনা যায়! নতুন মৌসুমে গোল করার স্ট্রাইকারের সন্ধানে আছেন গার্দিওলা। কিন্তু সিটির স্ট্রাইকার তো আছে! সার্জিও আগুয়েরো আছেন। আছেন কেলেচি ইহিয়ানাচোর মতো একাডেমি থেকে উঠে আসা ফরোয়ার্ড। পুরোপুরি স্ট্রাইকার না হলেও রহিম স্টারলিং, নলিতো, লিরয় সানে, কেভিন ডি ব্রুইন কিংবা হেসুস নাভাসের মতো ফরোয়ার্ডরাও আছেন সাহায্য করতে। এমন একটি দলই কিনা পুরো মৌসুমে ভালো খেলেও গড়ে প্রতি ম্যাচে দুই গোল করতে পারেনি। গার্দিওলার অস্বস্তিটা এখানেই, ‘প্রতিপক্ষ গোল করবে, সেটা মেনে নিতে আপত্তি নেই। কিন্তু আমরাও যথেষ্ট গোল করতে পারিনি। আমরা যথেষ্ট সুযোগ সৃষ্টি করেছি। পরিসংখ্যানের দিক থেকে প্রিমিয়ার লিগে আমরাই সবচেয়ে বেশি সুযোগ সৃষ্টি করেছি। কিন্তু গোল করায় আমরা সাতে (আসলে চতুর্থ)!’
আগামী মৌসুমে সে অবস্থা কাটিয়ে ওঠার পরিকল্পনা আছে গার্দিওলার। সব প্রতিযোগিতা মিলে ৩১ গোল করলেও আগুয়েরোকে নিয়ে সন্তুষ্ট নন কোচ। গোলের সুযোগ যে বড্ড বেশি নষ্ট করেন আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার। তাঁর বদলি হিসেবে আর্সেনালের অ্যালেক্স সানচেজকেই মনে ধরেছে গার্দিওলার। বাজারে গুঞ্জন চিলিয়ান ফরোয়ার্ডের জন্য ৫ কোটি ইউরো খরচ করতে প্রস্তুত সিটি। বার্সেলোনায় থাকা অবস্থায় সানচেজকে কাছ থেকে দেখেছেন। তাই জানেন সুযোগ কাজে লাগানোয় কতটা দক্ষ সানচেজ, ‘বিষয়টা জটিল। যে খেলোয়াড় দ্রুত, সে দ্রুত। যে শক্তিশালী, সে শক্তিশালী। যে হেডে ভালো, সে হেডে ভালো। আর যে গোল করায় পারদর্শী, সে গোল করে। ফলে আপনি যখন একজন দ্রুতগতির খেলোয়াড় কেনেন, আপনি একজন দ্রুত খেলোয়াড়কে কিনছেন। তাই গোল পেতে চাইলে সেটাও কিনতে হবে।’
অবশ্য গোল করার মতো একজন খেলোয়াড় সিটির কাছে আছে। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ফুটবলের নতুন সেনসেশনকে মাত্র ২ কোটি ৭০ লাখ পাউন্ডে দলে টেনেছে সিটি। কিন্তু মৌসুমের প্রথমভাগ পালমেইরাসে কাটিয়ে আসা ১৯ বছরের জেসুস সিটিতে আসার পর চোটের কারণে দুই মাস মাঠে নামতে পারেননি। এ নিয়ে বেশ কয়েকবারই দুঃখ প্রকাশ করেছেন গার্দিওলা। তবে আগামী মৌসুমে জেসুসকে নিয়েই স্বপ্ন দেখছেন কোচ, ‘জানি না, এত কম দামে ওকে কীভাবে পেলাম। এখন তো আরও দামি হবে সে। ওকে যখন পেলাম, অনেক কিছুই আশা করেছিলাম। তবে এত দ্রুত সে প্রভাব ফেলবে, এটা আশাতীত। আগামী বছরগুলোয় সেই এই ক্লাবের ভবিষ্যৎ হবে। যারা ভালো খেলোয়াড় তারা প্রভাব ফেলবেই। যেমন, মেসি। কত অল্প বয়সে বছরে ৪০টা লিগ গোল করেছে। আমরা মাঝে মাঝে বলি, মানিয়ে নিতে সময় লাগবে। কিন্তু আপনি যদি ভালো হন, তবে সময় লাগে না।’ এএফপি,প্রথম আলো অনলাইন।