টুপি ও আতর কেনাকাটায় ব্যস্ত ক্রেতারা

আপডেট: জুন ২৩, ২০১৭, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


পছন্দের টুপি বেছে নিচ্ছেন ক্রেতারা সোনার দেশ

মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর। আর এই ঈদের শেষ মুহূর্তের কেনাকাটায় ব্যস্ত ক্রেতারা। এরমধ্যে রমজানের শেষ সময়ে টুপি ও আতরের দোকানে কেনাকাটায় ভিড় জমেছে। বেচাকেনা চলবে ঈদের রাত পর্যন্ত। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ছোট-বড় সবধরনের বাহারি টুপির পসড়া সাজিয়ে রেখেছেন ব্যবসায়ীর। ঈদকে সামনে রেখে নগরীর সাহেববাজার আরডিএ মার্কেট ও নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন এলাকার মোড়ের দোকানে এবং মসজিদের সামনে ও ফুটপাতের বিভিন্ন দোকানে পাওয়া যাচ্ছে এসব জিনিস। নগরীর সাহেববাজার আরডিএ মার্কেটের আশপাশের ফুটপাথে প্রায় দোকানে টুপি-জায়নামাজ, তাসবিহ, মেসওয়াক, আতর-সুর্মার পসরা সাজিয়ে বসেছেন বিক্রেতারা। ধনী বা গরীব সবার জন্য রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন দামের পণ্য। যার নামেও রয়েছে বৈচিত্র্য। এরমধ্যে আগর, মেশক আম্বার, বেলীফুল, রজনীগন্ধা, কোবরা, জান্নাতুল ফেরদৌস বিভিন্ন নামের আতর বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা।
সাহেববাজার আরডিএ মার্কেট এলাকার টুপি ও আতর ব্যবসায়ীরা বলেন, ২০ রমজানের পর থেকে টুপি ও আতরের বাজারে ক্রেতা সমাগম বেড়েছে। এসব পণ্য বিক্রিও ভালো হচ্ছে। আতর ও টুপি বেশি বিক্রি হচ্ছে। প্রতিবছরের মতো এবারো আমরা দেশি আতরের পাশাপাশি বিদেশি আতর টুপি ও তসবিহ এনেছি। ৫০ টাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন দামে ছোট ও বড় শিশিতে আতর বিক্রি করছি। দেশি বিদেশি টুপি রয়েছে ৫০ টাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন দামে। প্রতি বছরে ঈদে আতর ও টুপির বেচাবিক্রি হয়। তবে রমজানের শেষের দিকে বিক্রি কিছুটা বাড়ে। ক্রেতারা আসছে টুপি ও আতর কিনতে। দেড় থেকে দুইশ টাকার টুপি বেশি বিক্রি হচ্ছে। সঙ্গে আতর ও জায়নামাজও বিক্রি হচ্ছে।
টুপি কিনতে আসা আক্তার হোসেন বলেন, ঈদের সব ধরনের কেনাকাটা শেষ হয়েছে। এখন টুপি ও আতর কিনতে এসেছি। আমি এবং আমার চার বছরের ছেলের জন্য টুপি কিনবো। দাম সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দাম যেমনই হোক বছরে একবার নতুন টুপি কিনতে হয়। তাই নতুন টুপি কিনেছি।
নগরীতে দেশের বানানো টুপির পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের টুপি পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া বেশির ভাগ আতরই মধ্যপ্রাচ্য থেকে আমদানি করা হয়। নানা ব্র্যান্ডের আতর পাওয়া যাচ্ছে দোকানে। দোকানে থাকা অনেক রকমের আতরের ছোট বড় বোতলের দাম পড়বে ৫০ থেকে শুরু করে পাওয়া যাচ্ছে। এরমধ্যে দুবাই তৈরি আতরের চাহিদা রয়েছে ক্রেতাদের নিকট।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ