ট্রাম্পকে ‘কমলা পূরীষ’ কটাক্ষ পর্নস্টার স্টর্মির! আদালতে জোর ‘নাটক’

আপডেট: মে ১১, ২০২৪, ২:২৩ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


স্টর্মি ড্যানিয়েলস ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। একজন পর্নস্টার। অন্যজন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবং ২০২৪ সালেই ফের মসনদে বসার অন্যতম দাবিদার। কিন্তু আদালতে তাঁরাই এখন মুখোমুখি। স্টর্মির মুখ বন্ধ করতে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে বিরাট অঙ্কের অর্থ ঘুষ দিয়েছিলেন ট্রাম্প। অভিযোগ এমনটাই। এবার সেই মামলার শুনানিতেই উঠে এল ‘কমলা পূরীষ’ প্রসঙ্গ।

শুনানির সময় ট্রাম্পের আইনজীবী সুজান নেচেলস স্টর্মির একটি টুইট দেখান। যেখানে পর্নস্টারকে নাম না করেই ট্রাম্পকে ‘কমলা পূরীষ’ কটাক্ষ করতে দেখা গিয়েছে। ট্রাম্পের আইনজীবীর দাবি, এই পোস্ট থেকে পরিষ্কার স্টর্মি মামলাটি থেকে কতটা লাভবান হতে চান। এই দাবি সঙ্গে নস্যাৎ করেন দেন স্টর্মি।

তিনি বলেন, পোস্টে কোথাও ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প’ লেখা হয়নি। ‘কমলা পূরীষ’ লেখা হয়েছে। কিন্তু তাঁর যুক্তি খারিজ করে দিতে থাকেন আইনজীবী। শুরু হয় বিতর্ক। পরে অবশ্য স্টর্মি মেনে নেন, তিনি ট্রাম্পকেই বোঝাতে চেয়েছিলেন।

২০০৬ সালে স্টর্মির সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্ক হয়েছিল বলে দাবি। অভিযোগ, বিষয়টা চেপে দিতে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে স্টর্মিকে এক চুক্তিতে সই করানো হয়েছিল। এমনকী অনেক অর্থও দেয়া হয়েছিল। সেই মামলারই শুনানি চলছে। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে স্টর্মি যা অভিযোগ করেছেন, তা বার বারই খণ্ডন করেছেন বর্ষীয়ান নেতা।

স্টর্মির দাবি, ট্রাম্প তাঁকে ‘হানিবাঞ্চ’ বলে ডাকতেন। ফোনেও এমন সব কথা বলতেন, অনেক সময়ই স্পিকারে রেখে বন্ধুদেরও শোনাতেন স্টর্মি। তাঁর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে আগে ট্রাম্প নাকি খবর নিয়েছিলেন, কীভাবে যৌনরোগে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়ে পরীক্ষা করেন স্টর্মি। একমাস অন্তরই পরীক্ষা হয় বলেও তাঁকে জানান পর্নস্টার।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন অনলাইন