‘ট্রাম্প পশ্চিমা মূল্যবোধ ধ্বংস করছেন’

আপডেট: জুন ১, ২০১৭, ১২:২১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপ সফর এবং জি সেভেন শীর্ষ সম্মেলন শেষে মঙ্গলবার দেশে ফিরে গেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে জি সেভেন সম্মেলনে জার্মানি সম্পর্কে তার অবস্থান ও মন্তব্য রীতিমতো বার্লিনকে ক্ষুব্ধ করেছে। জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গ্যাব্রিয়েল সাফ বলেছেন, ট্রাম্প পাশ্চাত্য মূল্যবোধ ধ্বংস করছেন।
মঙ্গলবার টুইটারে ট্রাম্প লিখেছেন, ‘আমাদের সঙ্গে জার্মানির ব্যাপক বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে। একইসঙ্গে তারা ন্যাটো ও সেনাবাহিনীকে যা দেওয়া উচিৎ তারচেয়ে কম তারা দিচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের জন্য এটা বেশ খারাপ। এটা পরিবর্তন হবে।’ এর আগে ব্রাসেলসে ইউরোপীয় কমিশন প্রেসিডেন্ট জঁ ক্লদ জাংকারের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘জার্মানরা খুব খারাপ৷কারণ, তারা যুক্তরাষ্ট্রে লাখ লাখ গাড়ি বিক্রি করছে৷ আমরা এটা বন্ধ করবো৷’ ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের পর এক নির্বাচনী প্রচারণায় জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল বলেছেন, একটা সময় ছিল যখন অন্যদের উপর পুরোপুরি নির্ভর করা যেত৷গত কয়েক দিনের অভিজ্ঞতার পরতাঁর মনে হচ্ছে, এখন আর সেটা সম্ভব নয়৷এই অবস্থায় ইউরোপীয়দের সামনে একটি পথ খোলা আছে৷অর্থাৎ নিজেদের দায়দায়িত্ব নিজেদের হাতেই তুলে নিতে হবে৷
জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গ্যাব্রিয়েল সাফ বলেছেন ‘ট্রাম্প প্রশাসনের অদূরদর্শী নীতির ফলে পশ্চিমা জগত সামগ্রিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছে এবং ইউরোপের স্বার্থের যথেষ্ট ক্ষতি হয়েছে৷’

এর কিছু দৃষ্টান্ত তুলে ধরে তিনি বলেন, কেউ যদি পরিবেশ সুরক্ষা দুর্বল করে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব আরও ত্বরান্বিত করে, সংকটপূর্ণ এলাকায় আরও অস্ত্র বিক্রি করে এবং রাজনৈতিকভাবে ধর্মীয় সংঘাত নিরসনের চেষ্টা না করে – সে ইউরোপের শান্তি ঝুঁকির মুখে ফেলছে৷এই অবস্থায় ইউরোপীয়দের একজোট হয়ে পরিবেশ সুরক্ষার জন্য লড়াই করতে হবে, অস্ত্র বিক্রি কমাতে হবে এবং ধর্মীয় মৌলবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
গ্যাব্রিয়েলের মধ্যবামপন্থি দল স্যোশাল ডেমোক্রেটসের নেতা মার্টিন শুলৎজ আরো কঠিনভাবে বলেছেন, ‘ট্রাম্প হচ্ছেন পাশ্চাত্য মূল্যবোধ ধ্বংসকারী।’
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ