ডিসেম্বরে রফতানি আয় কমেছে ৩ শতাংশ

আপডেট: জানুয়ারি ৮, ২০১৭, ১১:৪২ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ডিসেম্বরে ছিল ৩৩৫ কোটি ইউএস ডলার। তবে আয় হয়েছে ৩১০ কোটি ৭১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৭ দশমিক ২৫ শতাংশ কম।
একইসঙ্গে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের ডিসেম্বরের তুলনায়ও আয় কমেছে ৩ দশমিক ০৩ শতাংশ। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের (২০১৬-১৭) প্রথম ছয় মাসেও (জুলাই-ডিসেম্বার) অর্জিত হয়নি রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা। গত অর্থবছরে রফতানির লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হলেও গত ছয় মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আয় হয়েছে ৩ দশমিক ২৮ শতাংশ কম। একইসঙ্গে রফতানির আয়ের সবচেয়ে বড় খাত তৈরি পোশাকেও লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে। তবে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় এ বছর ৪ দশমিক ৪৪ শতাংশ রফতানি বেড়েছে।
২০১৫-১৬ অর্থবছরে সব ধরনের পণ্য রফতানিতে বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়েছিল ৩ হাজার ৪২৫ কোটি ৭১ লাখ ৮০ হাজার ডলার। চলতি অর্থবছরে (২০১৬-১৭) রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা হলো ৩ হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার। এর মধ্যে প্রথম ছয় মাসে আয় হয়েছে ১ হাজার ৬৭৯ কোটি ৮১ লাখ ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৩ দশমিক ২৮ শতাংশ কম। তবে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ের রফতানি আয়ের তুলনায় ৪ দশমিক ৪৪ শতাংশ বেশি।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রফতানি আয়ের ৮০ শতাংশের বেশি আসে তৈরি পোশাক খাতের উভেন এবং নিটওয়্যার থেকে। এ দুই খাতের মধ্যে নিটওয়্যার রফতিনিতে আয় কিছুটা বাড়লেও উভেনে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৯ দশমিক ৩৬ শতাংশ কমেছে। ফলে এর প্রভাব পড়েছে সামগ্রিক রফতানি আয়ে।
আলোচ্য সময়ে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় তৈরি পোশাক খাতের নিটওয়্যারে রফতানি আয় ২ দশমিক ৪৫ শতাংশ বেড়েছে। এ সময়ে নিটওয়্যারে রফতানি আয় হয়েছে ৬৮১ কোটি ৩৬ লাখ ডলার। যেখানে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬৬৫ কোটি ৬ লাখ ডলার।
তবে একই সময়ে তৈরি পোশাকের আরাক খাত উভেনে রফতানি আয় হয়েছে ৬৮৯ কোটি ৬১ লাখ ডলার। আর লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭৬০ কোটি ৮৬ লাখ ডলার। অর্থাৎ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৯ দশমিক ৩৬ শতাংশ কম অর্জীত হয়েছে।