ড্রেন আছে স্লাব নেই : বিপদের আশঙ্কায় পথচারীরা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৭, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীতে রাস্তা ও মার্কেটের সামনে নতুন ড্রেনের স্লাব বা ঢাকনি না থাকায় প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে পথচারী ও নগরবাসী। ইতোমধ্যে ড্রেনে পড়ে অনেকেই আহত হয়ে হাসপাতালে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এর ফলে যেকোন সময় বড় ধরনের দুঘর্টনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে নগরবাসীর। নতুন ভাবে নির্মিত ড্রেনের গভীরতা বেশি হওয়ায় স্লাব দেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যে কোন কোন এলাকায় ড্রেন নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে, আবার কোথাও কোথাও অব্যাহত রয়েছে। তারপরেও এ সমস্যা দ্রুত সমাধান না হলে মারাত্মক দুঘর্টনার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় মানুষ ও পথচারীরা।
খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, রাস্তার সংস্কারের পর নগরীর রানীবাজার, শিরোইল বাসস্ট্যান্ড রোড, সাগরপাড়া, ধরমপুর, লক্ষ্মীপুর জিপিও, মিজানের মোড়, এএইচএম কামারুজ্জামান উদ্যান সংলগ্ন, কাদিরগঞ্জ মসজিদ সংলগ্ন ও তালাইমারিসহ বিভিন্ন এলাকায় নতুন ড্রেনের মাঝে মাঝে স্লাব না থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে পথচারীদের। বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধ ও স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের বিড়ম্বনা বেশি।
নগরীর গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় তীব্র যানজট থাকায় পথচারীরা ফুটপাত দিয়ে চলাচল করে থাকে। তারপরেও ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থার মধ্যে দিয়ে বাধ্য হয়ে চলাচল করতে হচ্ছে, এতে সমস্যার শেষ নেই। ড্রেন নির্মাণের পরপরই স্লাব বসিয়ে দিয়ে এই সমস্যা প্রতিকারের দাবি জানান স্থানীয়রা।
এবিষয়ে শিরোইল ঢাকা বাসস্ট্যান্ড দিয়ে যাওয়ার সময় পথচারী সাকিম আলীসহ অনেকে বলেন, রাস্তা দিয়ে চলাচলের জন্য ফুটপাত ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু ড্রেনে মাঝে মাঝে স্লাব না থাকায় চলাচলে একটু কষ্ট হচ্ছে। দ্রুত স্লাব বসিয়ে দিলে কষ্ট কম হবে। যে কোন দুঘর্টনার কবল থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। সংশ্লিষ্ঠদের দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।
নগরীর এসব এলাকায় নতুন রাস্তা নির্মাণের পর ড্রেনের ওপর কিছু জায়গায় স্লাব দেয়া হলেও মাঝে মাঝে স্লাব না থাকায় চলাচলে সমস্যা পড়তে হচ্ছে পথচারীদের। এখন পর্যন্ত নগরীর কিছু কিছু এলাকায় খোলা ড্রেন রয়েছে। রাস্তার পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া এসব ড্রেনের ওপরে কোন স্লাব নির্মাণ করা হয় নি। ঝুঁকির মধ্যে দিয়ে পথচারী ও যানবাহন চলাচলকারীদের যাতায়াত করতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এতে চরম বিপদের মধ্যে রয়েছেন তারা।
এবিষয়ে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ ও ২৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ারুল আমিন আযব বলেন, নগরীতে রাস্তা ভাঙা ও ড্রেনের স্লাব দ্রুত বসিয়ে দেয়ার জন্য কাজ চলছে। তবে যেসব ড্রেনের মাঝে মাঝে স্লাব এখন পর্যন্ত দেয়া হয় নি, সেসব জায়গায় স্লাব বসিয়ে দেয়ার জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। যাতে পথচারী ও যানবাহন চলাচলকারীদের যাতায়াতে কোন সমস্যায় পড়তে না হয়। এছাড়া রাস্তা সংস্কারের কাজ বর্ষার পরেই দ্রুত করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ