ঢাকায় আবাসন ব্যবসায়ীকে ডেকে নিয়ে খুন

আপডেট: August 7, 2020, 10:34 pm

সোনার দেশ ডেস্ক


রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বাসা থেকে ডেকে নিয়ে এক আবাসন ব্যবসায়ীকে হত্যা করা হয়েছে।
নিহত আবুল খায়ের (৫২) সজীব বিল্ডার্স নামের একটি ডেভেলপার কোম্পানির মালিক।
শুক্রবার সকালে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার এম ব্লকে ওই কোম্পানির অধীনে নির্মাণাধীন একটি ভবনের দ্বিতীয় তলায় তার লাশ পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।
ঢাকা মহানগর পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আবুল খায়েরের মাথার পেছনে কিছু দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। মাথার মগজ বের হয়ে গেছে।”
নিহত আবুল খায়েরনিহত আবুল খায়েরবসুন্ধরা আবাসিক এলাকার জালাল গার্ডেনের ২১ নম্বর রোডের একটি বাসায় পরিবার নিয়ে থাকতেন আবুল খায়ের।
তার ছোট ভাই দৈনিক যায়যায়দিনের নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলা প্রতিনিধি আব্দুল বারী বাবলু বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে একটি ফোন পেয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে বেরিয়েছিলেন খায়ের।
“রাতে আর উনি বাসায় ফিরে আসেননি, ফোনও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। বিষয়টি ভাটারা থানায় জানানো হয়েছিল।”
এরপর শুক্রবার সকালে ওই নির্মাণাধীন ভবনের সামনে আবুল খায়েরের মোটর সাইকেলটি পড়ে থাকতে দেখা যায় এবং পুলিশ পরে ভবনের ছাদের আবুল খায়েরের মৃতদেহ পায়।
বাবলু বলেন, “কিছুদিন আগে একটি জমি কিনেছিলেন আমার ভাই। ওই জমি নিয়ে বিরোধ ছিল বলে আমাকে জানিয়েছিলেন। হয়ত ওই বিরোধের জেরে তাকে খুন হতে হল।”
ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার আবুল খায়ের এক সময় ঠিকাদারিতে যুক্ত ছিলেন। বছর দশেক আগে নিজেই আবাসন ব্যবসা শুরু করেন। কোম্পানির নাম ‘সজীব বিল্ডার্স’ রাখেন নিজের ছেলের নামে। তার মেয়ে খাদিজা আক্তার স্বর্ণা মেডেকেল কলেজে পড়ছেন বলে জানান বাবলু।
পুলিশ কর্মকর্তা সুদীপ বলেন, নির্মাণাধীন যে ভবনে আবুল খায়েরের লাশ পাওয়া গেছে, তিনিসহ মোট ৯ জন সেটার মালিক। তিনতলা পর্যন্ত ছাদ ঢালাইয়ের পর গত ফেব্রুয়ারি থেকে ভবনের কাজ বন্ধ ছিল।
“মৃতদেহ এখনো ঘটনাস্থলে রয়েছে। পুলিশ এ হত্যাকাণ্ডের তদন্ত শুরু করছে। ভবনের মালিকতের মধ্যে তিনজনকে ইতোমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।”
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ