ঢাকায় নেয়া হলো করোনা আক্রান্ত এমপি বাদশাকে

আপডেট: এপ্রিল ১৫, ২০২১, ৯:০৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রাজশাহী-২ সদর আসনের সংসদ সদস্য ও ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশাকে। তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে ৩টার দিকে রাজশাহী থেকে হেলিকপ্টারে তাকে ঢাকায় নেয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস। তিনি বলেন, সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশার চিকিৎসায় ১৪ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. খলিলুর রহমানকে প্রধান করে এই মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছিল। পরে মেডিক্যাল বোর্ডের বৈঠকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় স্থানান্তরের পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। এরপর দুপুর ২টার দিকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার জন্য তাকে হাসপাতাল থেকে বের করা হয়।
ডা. সাইফুল ফেরদৌস আরও বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বুধবার (১৪ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। ডা. খলিলুর রহমান বলেন, ভর্তির সময় তার অক্সিজেন স্যাচুরেশনের লেভেল ৯৭ থেকে ৯৮ শতাংশের মধ্যে উঠানামা করছিল। তার শারীরিক অবস্থা ভাল আছে। তবে তার ডায়াবেটিকসহ অন্য কিছু সমস্যা রয়েছে। বিশেষ করে ডিডাইমার রিপোর্ট অস্বাভাবিক এসেছে। তাই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, রাজশাহীতে ফজলে হোসেন বাদশাই প্রথম ব্যক্তি যিনি দুই ডোজ করোনার টিকা সবার আগে নিয়েছিলেন। দুই ডোজ করোনার টিকা নেয়ার পর তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তিনি বলেন, গত ৭ ফেব্রুয়ারি প্রথম ডোজ এবং ৮ এপ্রিল করোনার দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেন এমপি বাদশা। দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেয়ার পর থেকেই তার হালকা জ্বর আসে। ১২ এপ্রিল থেকে তার তীব্র জ্বর শুরু হয়। এরপর গত মঙ্গলবার তিনি নমুনা দেন। বুধবার তার পরীক্ষার রিপোর্ট করেনা পজিটিভ আসে।
অন্যদিকে বাংলা ট্রিবিউন সূত্রে জানা গেছে, করোনা আক্রান্ত ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে করোনা আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি।
চিকিৎসকদের পরামর্শে বাদশার চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন পর্যায়ের ‘ক্লিনিক্যাল টেস্ট’ চলছিল। রাজশাহীতে গঠিত মেডিকেল বোর্ড তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তরের পরামর্শ দিলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তত্বাবধানে বাদশাকে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টার যোগে ঢাকায় আনা হয়।
ওয়ার্কাস পার্টির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাদশার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তার অক্সিজেন সেচুরেশন মাত্রা এখনও স্বাভাবিক আছে।
এদিকে ফজলে হোসেন বাদশার চিকিৎসার বিষয়ে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ ও চিকিৎসার জন্য পার্টি সভাপতি রাশেদ খান মেননকে প্রধান করে ও পলিটব্যুরোর সদস্যদের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। পলিটব্যুরো সার্বক্ষণিক বাদশার স্বাস্থ্যগত অবস্থার খোঁজ রাখছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ