তথ্যফাঁস: ভেড়া শিকারে সরকারের ৭৫ হাজার ডলার উড়িয়েছেন ট্রাম্পপুত্র

আপডেট: জুন ১০, ২০২০, ১:৪৫ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


মঙ্গোলিয়ায় বিপন্ন প্রজাতির ভেড়া শিকারে গিয়ে সরকারের ৭৫ হাজার ডলার খরচ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পুত্র ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র। সম্প্রতি এ এ তথ্য ফাঁস করেছে সিটিজেনস ফর রেসপনসিবলিটি অ্যান্ড এথিকস ইন ওয়াশিংটন (সিআরইডব্লিউ) নামে একটি সংগঠন।
পসামবার প্রকাশিত তথ্যে সিআরইডব্লিউ জানিয়েছে, গত আগস্টে ট্রাম্প জুনিয়রের মঙ্গোলিয়া ভ্রমণে ব্যয় হয়েছে মোট ৭৬ হাজার ৮৫৯ মার্কিন ডলার। অথচ গত মার্চে সিক্রেট সার্ভিস জানিয়েছিল, এ ভ্রমণে ব্যয় মাত্র ১৭ হাজার ডলার।
পুরনো নথিপত্রে বলা হয়েছে, ট্রাম্পপুত্রের সফরে মারমারা ইন্টারন্যাশনাল এলএলসি ক্যাম্পিংয়ে ১৫ হাজার ৯৯৯ ডলার পরিশোধ করেছে সিক্রেট সার্ভিস। জুনিয়রের নিরাপত্তা উপকরণের খাতিরে আরও ১ হাজার ৭০৫ ডলার ব্যয় দেখানো হয়েছে সেখানে।
পরে তদন্তে দেখা যায়, উলানবাটার এলাকার শাংরি-লা হোটেল ১২ হাজার ২৫ ডলার পরিশোধ করেছে সিক্রেট সার্ভিস। প্রেসিডেন্টপুত্রের ফোন ও গাড়ির পেছনে খরচ হয়েছে আরও ১ হাজার ৯২৭ ডলার।
এই ভ্রমণ মূলত আলোচনায় আসে গত ডিসেম্বরে প্রোপাবলিকা নামে একটি দাতব্য সংস্থা ট্রাম্প জুনিয়র কীভাবে বিপন্ন আরগালি প্রজাতির ভেড়া শিকারের অনুমতি পেয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন তোলার পর।
তাদের দাবি, প্রেসিডেন্টপুত্রকে দেয়া আরগালি ভেড়া শিকারের অনুমতিপত্র ইস্যু হয়েছে ২ সেপ্টেম্বর। অথচ ভেড়া শিকার হয়ে গেছে তার অনেক আগেই।
পদশে ফেরার আগে মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট বাট্টুগুলার সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছিলেন ট্রাম্পপুত্র। তবে সিক্রেট সার্ভিসের বিবরণীতে এসময় হওয়া ব্যয়ের কোনও উল্লেখ নেই। ভ্রমণে যুক্তরাষ্ট্র ও মঙ্গোলিয়ার সরকারি কয়েকজন কর্মকর্তাও ট্রাম্প জুনিয়রের সঙ্গে ছিলেন।
তবে ট্রাম্পপুত্রের এক মুখপাত্র দাবি করেছেন, ওই সফর ছিল জুনিয়রের একান্ত ব্যক্তিগত। ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার অনেক আগেই নাকি ট্রাম্প জুনিয়র ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসিয়েশনের নিলামে সাত দিনব্যাপী মঙ্গোলিয়া সফর কিনেছিলেন।
সূত্র: ডেইলি মেইল, জাগোনিউজ