তবুও হেলমেট পরবেন না আম্পায়ার!

আপডেট: ডিসেম্বর ১৮, ২০১৬, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড ওয়ানডে সিরিজে কি আম্পায়ার পল রেইফেলকে হেলমেট পরতে দেখা যাবে? এই নিরাপত্তা বর্ম নিয়েই কি ম্যাচ পরিচালনা করবেন? মুম্বাইয়ে ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজের চতুর্থ টেস্টে ফিল্ডারের ছোঁড়া বলের আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়েছিলেন তিনি। হাসাপাতালে যেতে হয়েছিল। এখন বিশ্রামে। কিন্তু প্রশ্নটা উঠছে এবং রেইফেলের কাছ থেকে জবাবটা ‘না’ আসছে।
সেদিন ছিল ভারত-ইংল্যান্ড চতুর্থ টেস্টের প্রথম দিন ঘটনা। ফিল্ডার ভুবনেশ্বর কুমারের ছোড়া বল রেইফেলের মাথার পেছনে আঘাত করে। সব অন্ধকার! এরপর ওই ম্যাচে আর মাঠে নামা হয়নি অস্ট্রেলিয়ান আম্পায়ারের। এমন দুর্ঘটনার কারণেই মাঠে আম্পায়ারেরও হেলমেট পরার পক্ষপাতী অনেকেই। ব্যাপারটা বেশ চোখেও পড়ছে ইদানীং। শুক্রবার বাংলাদেশের বিপক্ষে সিডনি থান্ডারের প্রস্তুতি ম্যাচেও এক আম্পায়ার দায়িত্ব পালন করেছেন হেলমেট পরে। কিন্তু আঘাত পেয়েও রেইফেল হেলমেট পরতে নারাজ! তার কাছে এটা খুব ঝামেলার ব্যাপার।
অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়াকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রেইফেল বলেছেন, ‘এটা যেমন ভারি তেমন গরম হবে। টানা পাঁচদিন হেলমেট মাথায় পরে থাকা তাই অসম্ভব একটা কাজ।’ তিনি আরও বলেন, ‘হেলমেট থাকলে অনেক ক্ষেত্রে অনেক কিছু শোনা যায় না। যেটা একজন আম্পয়ারের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ধরেন আমি নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় নিয়ে সেটা মাথায় পরলামও। কিন্তু তারপর কি ঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারব? যদি পারিও সেটার জন্য আমাকে রীতিমতো সংগ্রাম করতে হবে।’
অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ফাস্ট বোলার রেইফেল বর্তমানে আম্পায়ারের দায়িত্বটা নিয়মিতই পালন করেন। কিন্তু মুম্বাই টেস্টের ওই দুর্ঘটনার পর থেকে মেলবোর্নে নিজ বাড়িতে রয়েছেন তিনি। আইসিসি ‘আনফিট’ মনে করায় চেন্নাইয়ের চলমান টেস্টের দায়িত্বে রাখা হয়নি রেইফেলকে। তবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে মাঠে ফেরার কথা তার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ