তরুণদের উদ্ভাবনী ক্ষমতাকে কাজে লাগাতে হবে : লিটন

আপডেট: মার্চ ১, ২০১৭, ১:১৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



নগরীতে শেষ হলো আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অমর একুশে বইমেলা। গতকাল মঙ্গলবার রাজশাহী কমেডি ক্লাব আয়োজিত সপ্তাহব্যাপি এ মেলার সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়।
নগরীর বড়কুঠি পদ্মা গার্ডেনের মেলা প্রাঙ্গণে আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, নগর পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার তমিজউদ্দিন আহমেদ, রেডিও পদ্মার প্রধান সমন্বয়কারী জিএম মর্তুজা।
সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রধানকালে নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, বই মানুষের জ্ঞান বিকশিত করে। আর বই মেলায় মানুষ নিত্যনতুন বইয়ের সঙ্গে পরিচিত হয়। বিশেষ করে বই তরুণদের মাঝে উদ্ভাবনী ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। তরুণদেরকে এ উদ্ভাবনী ক্ষমতাকে দেশের উন্নয়নে কাজে লাগাতে হবে।
বইমেলার শেষ দিনে মেলা প্রাঙ্গণে ছিল ক্রেতা দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। প্রতিটি স্টলেই তরুণ-যুবাদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। শেষ দিনে বই কেনাবেচাও হয়েছে ভালো।
মেলার আয়োজকদের একজন তামিম বলেন, মেলায় সাতদিনে আমরা মোট প্রায় দুই লক্ষ টাকার মত বই কেনাবেচা করেছি। আর প্রায় প্রতিদিনই মেলাতে ক্রেতা আর দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভীড় ছিল।
তিনি বলেন, বই মেলায় আমরা সবচেয়ে বেশি বিক্রি করেছি মুহাম্মদ জাফর ইকবাল’র লেখা বৈজ্ঞানিক কল্প কাহিনী ‘রিটিন’ বইটি। সাতদিনে এ বইয়ের প্রায় একশ কপি আমরা মেলায় বিক্রি করেছি। পাশাপাশি অন্য বইও বিক্রি হয়েছে। হুমায়ুন আহম্মেদ’র ‘১৯৭১’ বইটিও ক্রেতারা কিনেছেন ভালোই। আর হৃদি প্রকাশ থেকে প্রকাশিত সোহান রেজা সম্পাদিত ‘গল্পের হাট-৫’ বইটির চাহিদাও ছিল উল্লেখ করার মত।
ইচ্ছে ফোরাম ও লিখবো যা বলেতে চাই-এর সহযোগিতায় রাজশাহী কমেডি ক্লাবের উদ্যোগে নগরীর পদ্মাপাড়ে দ্বিতীয় বারের মত এ বই মেলার আয়োজন করা হয়।
মাস্টার সেফ, নিউজ হোম, বুক পয়েন্ট, হৃদি প্রকাশনী, বই বিতান, লিখবো যা বলতে চাই, বই ঘর এবং তথ্য কেন্দ্র এ সাতটি স্টল ছিল মেলায়।