তানোরে চা দোকানি ও হোটেল শ্রমিকদের অসহায় জীবন

আপডেট: এপ্রিল ৮, ২০২০, ১০:২৫ অপরাহ্ণ

লুৎফর রহমান,তানোর


তানোর উপজেলার প্রায় কয়েক হাজারের মতো চায়ের দোকানি ও হোটেল শ্রমিকরা এখন অসহায় হয়ে পড়েছেন। ইতোমধ্যে তানোরে বেশ কয়েকটি বাড়ি লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে। দিনদিন পরিস্তিতি আরো জটিল হচ্ছে। ভয় আর সরকারি সিদ্ধান্তে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে তানোর উপজেলার চায়ের দোকান ও হোটেলগুলো। আয়-রোজগার বন্ধ হয়ে গেছে। এতে দিন খেটে দিনে রোজগার করা চায়ের দোকানি ও হোটের শ্রমিকরা এখন হয়ে পড়েছেন অসহায়। পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।
তানোর থানার মোড়ের চা বিক্রেতা বিপুল, লিটন, রতন বলেন, গত একসপ্তাহ ধরে চায়ের দোকান বন্ধ থাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে কষ্টে জীবন যাপন করছি। অপরদিকে কিছু সাহায্যর আশায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে কয়েকদিন ধরে ধারনা দিয়েও কোন ত্রাণ সামগ্রী পাইনি। তার কাছে না পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের অফিসে যাই। চেয়ারম্যানের অফিসে কয়েকদিন ঘুরেই তার সাক্ষাৎ পাইনি আমরা। বর্তমানে দোকান না চলায় পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি।
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো জানান, জেলা প্রশাসক স্যারের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান ও বনিক সমিতির নেতা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের কাছ থেকে তালিকা চেয়েছি। আশা করি কয়েকদিনের মধ্যে ধারাবাহিকভাবে পাবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ