তানোরে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান থেকে মোটরসাইকেল চুরি

আপডেট: ডিসেম্বর ১৬, ২০২৩, ৭:২০ অপরাহ্ণ

তানোর প্রতিনিধি:


রাজশাহীর তানোরে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান দেখতে এসে সিদিপ নামের এনজিওর কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারের মোটরসাইকেল চুরি হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টা থেকে সোয়া ১০ টার মধ্যে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম থেকে বাইক চুরির ঘটনাটি ঘটে। চুরির পর দুপুর ১ টা পর্যন্ত খোঁজ করেও কোনো কিনারা করতে পারেন নি মোটরসাইকেল মালিক জাহিদ হাসান। গত বছরেও বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান থেকে মডেল পাইলট স্কুলের শিক্ষকের মোটরসাইকেল চুরি হয়। বিজয় দিবসে বাইক চুরির ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে সাধারণের মাঝে এক প্রকার ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। সেই সাথে এভাবে মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় উদ্বিগ্ন জনসাধারণ।

মোটরসাইকেলের মালিক সিদিপ এনজিওর কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার জাহিদ হাসান বলেন, সকাল ১০ টার দিকে অনুষ্ঠান দেখার জন্য শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে যায়। স্টেডিয়ামে প্রবেশের জায়গা বা বিদ্যুতের পোলের কাছে মোটরসাইকেল রেখে ভিতরে যায়। এসে দেখি মোটরসাইকেল নাই। মাত্র ৫ মিনিটের ব্যবধানে মোটরসাইকেল টি চুরি হয়েছে। চুরি পর প্রায় দুপুর ১ টা পর্যন্ত খোঁজাখুজি করে কোন সন্ধান করা যায়নি। জাহিদ হাসানের বাড়ি নিলফামারী জেলার পঞ্চপুকুরগ্রামে। সে আসাদুজ্জামান সরকারের পুত্র। জাহিদ হাসান সিদিপ নামের বে সরকারি এনজিও তানোর শাখার কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার ব্যবহিত হিরো গ্লামার লাল কালারের মোটরসাইকেল টির নম্বর নিলফামারী -হ ১১-৮৯৬০।

জাহিদ আরো বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে থানায় জিডি বা অভিযোগ করা হবে।
স্থানীয়রা জানান, আমরা দেখলাম মোটরসাইকেল নিয়ে মাঠে গেল। এসে বলছে মোটরসাইকেল টি চুরি হয়ে গেছে। মাত্র পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে চুরি হয়েছে। গত বছর বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান থেকেও মোটরসাইকেল চুরি হয়েছিল। এভাবে চুরি হচ্ছে অথচ কোন চোর ধরা পড়ছে না।

থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রহিম বলেন, মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় এখনো কেউ জিডি বা অভিযোগ করেন নি, করলে তদন্ত সাপেক্ষে যাবতীয় সবকিছু করা হবে।

Exit mobile version