তানোরে সরিষা কাটা মাড়াই শুরু : দাম ভালো, বাম্পার ফলন

আপডেট: জানুয়ারি ২৩, ২০২২, ১:৪১ অপরাহ্ণ


লুৎফর রহমান তানোর :


রাজশাহীর তানোর উপজেলা জুড়ে এখন সরিষা কাটা মাড়াই শুরু হয়েছে। এবার দম ও ফলন ভালো পেয়ে কৃষকরদের মুখে হাসির ঝলক দেখা যাচ্ছে।

উপজেলা জুড়ে সরিষা উঠানো নিয়ে সরিষা ফসলের মাঠে শ্রকিমরা ব্যস্ত রয়েছে। চারদিক থেকে শুধু সরিষা দানার সুবাস ভেসে আসছে। সরিষার এমন আবাদ দেখে কৃষকদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে।

কৃষকরা বলছেন, বাজারে ভালো দাম আছে। ফলন ও বেজাই ভালো।
গত মৌসুমেও তারা সরিষা চাষাবাদ করে বাম্পার ফলন পেয়েছিলো। সেই সাথে দাম ও ভালো পেয়েছে এলাকার চাষিরা। চলতি মৌসুমে সষিরার বাম্পার ফলন হবে।

বাজারে দামও ভালো। সবমিলিয়ে এবার তাদের আশানুরূপ লাভ হবে বলে প্রতিবেদককে একাধিক সরিষা চাষি জানিছেন।

শনিবার (২২ জানুয়ার) দুপুরে উপজেলার বিভিন্ন মাঠে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলার বেশির ভাগ ফসলের মাঠে উচু জমিগুলোতে এ বছর প্রচুর পরিমাণে সরিষা আবাদ করা হয়েছে।

যে দিকে চোখ যায় শুধু হলুদ রঙের সরিষার ক্ষেত চোখে পড়ে। তাকালেই যেন সরিষা ফসলের সৌন্দর্যে চোখ জুড়িয়ে যায়।

উপজেলার বাধাইড় ইউনিয়নের গাল্লা গ্রামের কৃষক সাদিকুল ইসলাম বলেন, এ বছর আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় সরিষার চাষাবাদ ভালো হয়েছে।

বেশির ভাগ মাঠ জুড়ে শুধু সরিষা আর সরিষা। কয়েকদিনের মধ্যে কোনো প্রাকৃতিক বিপর্যয় না হলে বিগত বছরগুলোর তুলনায় এ বছর সরিষার ভালো ফলন পাওয়া যাবে।

ক্ষেতে সরিষা দেখে মন জুড়িয়ে যায়। সরিষার ফলন দেখে কৃষকের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে। দাম ভালো আমরা ও খুশি হবো।

জুমারপাড়া গ্রামের সরিষা চাষি আব্দুর রশীদ জানান, আমি ২ বিঘা জমিতে সরিষা চাষাবাদ করেছি। ফলন ভালো হয়েছে। প্রতিমণ সরিষা ২ হাজার ৫শ টাকা দরে বিক্রিয় করেছি।

দু’বিঘা জমিতে উৎপাদন খরচ বাদ দিয়ে ২০ হাজার টাকা বেশি পেয়েছি। এতে আমি বেজাই খুশি। আবদুর রশীদ আরো বলেন, এলাকায় বেশির ভাগ কৃষকের সরিষার ব্যাপক ফলন হচ্ছে বলে তিনি জানান।

উপজেলা কৃষি সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে উপজেলার ২টি পৌরসভা এবং ৭টি ইউনিয়নে ১ হাজার ৫শ’ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ হয়েছে। এর মধ্যে উন্নত জাতের সরিষা হলো টরি ৭(সাত) ,বারি-১৪, বারি-১৫ জাতের সরিষার বেশী ছাষাবাদ হয়েছে।

গতবছর এই আবাদের পরিমান ছিলো ১ হাজার ২শ হেক্টর। সে হিসেবে চলতি মৌসুমে বেড়েছে ৩শ হেক্টর জমিতে।

উপজেলার কৃষি অফিসার সামিমুল ইসলাম জানান, সরিষা চাষে কৃষি কর্মকর্তারা কৃষকদের নিয়মিত উদ্বুদ্ধকরণ করে থাকে। উৎপাদন বৃদ্ধির জন্যও কৃষকদের প্রতিনিয়ত পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে। ফলে চলতি মৌসুমে সরিষার বাম্পার ফলন হচ্ছে বলে জানান এ কর্মকর্তা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ