তানোর নববধূর আত্মহত্যা: স্বামী গ্রেপ্তার

আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০২০, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

তানোর প্রতিনিধি


রাজশাহীর তানোরে গলায় ফাঁস দিয়ে সদ্য বিয়ে হওয়া এক নববধূ আত্মহত্যা করেছেন। ওই নববধূর নাম ফারআনা তিথি (১৬) তিনি তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা পৌর এলাকার সাদিপুর গ্রামের টিটুর মেয়ে। গত শনিবার সন্ধ্যায় ওই নববধু তার বাবার বাড়ির টিনের চালার সাথে উড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। এঘটনায় নববধূর মা মেহেরুন বিবি বাদি হয়ে তিথির স্বামীকে আসামী করে তানোর থানায় একটি আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলা দায়ের করেন। তবে, তিথির বাবা দীর্ঘদিন ধরে ভারতে অবস্থান করছেন।
গতকাল রোববার সকালে তিথির লাশ ময়না তদন্তের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং ওই মামলার প্রধান আসামী নববধুর স্বামী ফাইমকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এর আগে গত শনিবার রাতে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার ও তিথির স্বামীকে গ্রেফতার করে।
মামলা, পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত দেড় মাস আগে তিথির ফুফাতো ভাই পবা উপজেলার দামকুড়া গ্রামের নজিবুর রহমানের পুত্র ফাইম (২৭)’র বিয়ে হয়। তিথি’র মা মেহেরুন বিবি বলেন, বিয়ের পরে তাদের নতুন সংসার ভালভাবেই কাটছিল, গত ১ সপ্তাহ থেকে তিথি তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলো। গত ২দিন আগে জামাই এসে ১দিন পর চলে গেছে। জামাই চলে যাওয়ার পর থেকে তার মেয়ে তিথি মন ভার করেছিলেন। তবে, কি কারণে তার মেয়ে মন ভার করেছিলেন তা কাউকেই বলেনি তিথি। তিনি বলেন, গত শনিবার সন্ধ্যায় তিনি (তিথি’র মা) পাশের বাড়িতে গিয়েছিলেন, কিছুক্ষণ পরে বাড়ি ফিরে বারান্দার টিনের চালার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে তিথিকে ঝুলে থাকতে দেখেন। তিথির মা বলেন মনমালিন্যের কারণেই তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে খবর পেয়ে তানোর থানা ও মুন্ডুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।
এব্যাপারে তানোর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাকিবুল হাসান বলেন, রাতে লাশ উদ্ধার ও তিথির স্বামীকে গ্রেফতার করে থানায় নেয়া হয়। রোববার সকালে ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে ও গ্রেফতার স্বামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, উভয়ের মধ্যে মনোমালিন্যের কারণে তিথি আত্মহত্যার করেছে।