বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

তামাকমুক্ত নগরী গড়তে তরুণ ও যুবসমাজের ভূমিকা জরুরি

আপডেট: December 9, 2019, 12:48 am

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীসহ পুরো দেশ আজ তামাকের ভয়াল ছোঁবলে মারাত্মকভাবে আক্রান্ত। সমাজের যেকোনো অন্যায়-অসঙ্গতি দূর করার ক্ষেত্রে যুবসমাজের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। তাই রাজশাহী সিটি করপোরেশন ও স্থানীয় প্রশাসনের পাশাপাশি রাজশাহী নগরীকে তামাকমুক্ত নগরী হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে তরুণ কিংবা যুবসমাজের ভূমিকা অত্যন্ত জরুরি।
গতকাল রোববার সকালে রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত তামাকমুক্ত রাজশাহী নগরী গড়ার ক্ষেত্রে জনসমর্থন বাড়াতে যুবসমাজ, তামাকবিরোধী কোয়ালিশন ও এন্টি-টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্স আত্মা এর সদস্যদের নিয়ে এক মতবিনিময় ও কমিটি গঠন সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
উন্নয়ন সংস্থা এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি এর আয়োজনে ও ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিড্স-সিটিএফকে এর সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, এসিডি এর নির্বাহী পরিচালক সালীমা সারোয়ার। এসিডি এর প্রধান কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও রাজশাহীর তামাক নিয়ন্ত্রণ কোয়ালিশন সদস্য আবুল কালাম আজাদ, আত্মা এর রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক শরীফ সুমন এবং রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ৪ নম্বর জোনের (ওয়ার্ড নম্বর ৯, ১১ ও ১২) সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শিরিন আরা খাতুন।
এসিডির মিডিয়া ম্যানেজার আমজাদ হোসেন শিমুলের উপস্থাপনায় এসময় রাজশাহীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৯ জন শিক্ষার্থী এবং রোভার স্কাউট গ্রুপের ২ জন, বিএনসিসির ২ জন, রেঞ্জার গ্রুপের ২ জনসহ মোট ১৫ জন শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময় সভায় ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন বাস্তবায়নে এবং তামাকমুক্ত রাজশাহী নগরী গড়তে যুবসমাজের ভূমিকা শীর্ষক পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেন এসিডির এডভোকেসি অফিসার শরিফুল ইসলাম শামীম। পরে রাজশাহী নগরীকে শতভাগ তামাকমুক্ত নগরী হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে স্থানীয় পর্যায়ের যুব সমাজের সদস্যদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়।
কমিটিতে রাজশাহী কলেজের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী আসাদুজ্জামান নূরকে আহ্বায়ক এবং নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিবিএ’র শিক্ষার্থী একরামুলক হক সানীকে দেয়া হয়েছে সদস্য সচিবের দায়িত্ব। এছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের শিক্ষার্থী সাব্বির আহম্মেদ, রাজশাহী কলেজের গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী ও রোভার স্কাউট সদস্য শরিফুল ইসলাম, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী ও রেঞ্জার সদস্য ইসরাত জাহান তামান্না এবং অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী কামরুল হাসানকে কমিটির যুগ্ম সচিবের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এছাড়া ১৫ সদস্য বিশিষ্ট এই আহ্বায়ক কমিটির বাকিদেরকে কার্যকরি সদস্য নির্বাচিত করা হয়েছে।
সভায় তামাক নিয়ন্ত্রণ কোয়ালিশনের সদস্য আবুল কালাম আজাদ, আত্মার বিভাগীয় সমন্বয়ক শরীফ সুমন এবং রাজশাহী সিটি করপোরেশন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শিরিন আরা খাতুনকে এই ইয়ূথ কমিটির উপদেষ্টা হিসেবে রাখা হয়েছে। মতিবিনিয়ম সভায় অন্যদের মধ্যে এসিডি’র প্রোগ্রাম অফিসার কৃষ্ণা রাণী বিশ্বাস ও আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
তামাকমুক্ত নগরী গড়তে তরুণ ও যুবসমাজের ভূমিকা জরুরি
নিজস্ব প্রতিবেদক
নগরীসহ পুরো দেশ আজ তামাকের ভয়াল ছোঁবলে মারাত্মকভাবে আক্রান্ত। সমাজের যেকোনো অন্যায়-অসঙ্গতি দূর করার ক্ষেত্রে যুবসমাজের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। তাই রাজশাহী সিটি করপোরেশন ও স্থানীয় প্রশাসনের পাশাপাশি রাজশাহী নগরীকে তামাকমুক্ত নগরী হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে তরুণ কিংবা যুবসমাজের ভূমিকা অত্যন্ত জরুরি।
গতকাল রোববার সকালে রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত তামাকমুক্ত রাজশাহী নগরী গড়ার ক্ষেত্রে জনসমর্থন বাড়াতে যুবসমাজ, তামাকবিরোধী কোয়ালিশন ও এন্টি-টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্স আত্মা এর সদস্যদের নিয়ে এক মতবিনিময় ও কমিটি গঠন সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
উন্নয়ন সংস্থা এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি এর আয়োজনে ও ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিড্স-সিটিএফকে এর সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, এসিডি এর নির্বাহী পরিচালক সালীমা সারোয়ার। এসিডি এর প্রধান কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও রাজশাহীর তামাক নিয়ন্ত্রণ কোয়ালিশন সদস্য আবুল কালাম আজাদ, আত্মা এর রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক শরীফ সুমন এবং রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ৪ নম্বর জোনের (ওয়ার্ড নম্বর ৯, ১১ ও ১২) সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শিরিন আরা খাতুন।
এসিডির মিডিয়া ম্যানেজার আমজাদ হোসেন শিমুলের উপস্থাপনায় এসময় রাজশাহীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৯ জন শিক্ষার্থী এবং রোভার স্কাউট গ্রুপের ২ জন, বিএনসিসির ২ জন, রেঞ্জার গ্রুপের ২ জনসহ মোট ১৫ জন শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময় সভায় ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন বাস্তবায়নে এবং তামাকমুক্ত রাজশাহী নগরী গড়তে যুবসমাজের ভূমিকা শীর্ষক পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেন এসিডির এডভোকেসি অফিসার শরিফুল ইসলাম শামীম। পরে রাজশাহী নগরীকে শতভাগ তামাকমুক্ত নগরী হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে স্থানীয় পর্যায়ের যুব সমাজের সদস্যদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়।
কমিটিতে রাজশাহী কলেজের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী আসাদুজ্জামান নূরকে আহ্বায়ক এবং নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিবিএ’র শিক্ষার্থী একরামুলক হক সানীকে দেয়া হয়েছে সদস্য সচিবের দায়িত্ব। এছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের শিক্ষার্থী সাব্বির আহম্মেদ, রাজশাহী কলেজের গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী ও রোভার স্কাউট সদস্য শরিফুল ইসলাম, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী ও রেঞ্জার সদস্য ইসরাত জাহান তামান্না এবং অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী কামরুল হাসানকে কমিটির যুগ্ম সচিবের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এছাড়া ১৫ সদস্য বিশিষ্ট এই আহ্বায়ক কমিটির বাকিদেরকে কার্যকরি সদস্য নির্বাচিত করা হয়েছে।
সভায় তামাক নিয়ন্ত্রণ কোয়ালিশনের সদস্য আবুল কালাম আজাদ, আত্মার বিভাগীয় সমন্বয়ক শরীফ সুমন এবং রাজশাহী সিটি করপোরেশন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শিরিন আরা খাতুনকে এই ইয়ূথ কমিটির উপদেষ্টা হিসেবে রাখা হয়েছে। মতিবিনিয়ম সভায় অন্যদের মধ্যে এসিডি’র প্রোগ্রাম অফিসার কৃষ্ণা রাণী বিশ্বাস ও আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।