তামিমদের বরণে আর তর সইছে না সরফরাজদের

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৭, ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দীর্ঘদিন বিশ্ব ক্রিকেটের নামডাকওয়ালা ক্রিকেটারদের পা পড়ে না পাকিস্তানে। ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা দলের উপর হামলার পর বড় কোন দলই সফরে যায়নি ওদেশে। পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরাতে সম্প্রতি উদ্যোগী হয়েছে খোদ আইসিসি। বিশ্ব একদশের বিপক্ষে কদিন পরই ৩টি টি-টুয়েন্টি খেলবে পাকিস্তান। বিশ্ব একাদশের তামিম ইকবাল, হাশিম আমলা, ফাফ দু প্লেসিরা কখন পাকিস্তানে পা রাখবেন অপেক্ষার প্রহর গুনে যেন তর সইছে না স্বাগতিকদের।
১২, ১৩ ও ১৫ সেপ্টেম্বর লাহোরে হবে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। আইসিসির উদ্যোগের কারণেই সিরিজটি এরমধ্যে পেয়েছে আন্তর্জাতিক ম্যাচের মর্যাদা। পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ রাখঢাক না রেখেই এই সিরিজ নিয়ে নিজের রোমাঞ্চের কথা জানিয়েছেন, ‘বিশ্ব একাদশকে পাকিস্তানে আসতে দেখে আমি খুবই রোমাঞ্চিত। নিজ দেশের দর্শকদের সামনে খেলতে মুখিয়ে আছি।’
মাঠের ক্রিকেটের চেয়েও স্বাভাবিক কারণে এই সিরিজে মাঠের বাইরের ইস্যুই বড়। নিজেদের দেশকে ক্রিকেটের জন্য নিরাপদ প্রমাণে মরিয়া পাকিস্তান এই সিরিজকে দেখছে উত্তরণের পথ হিসেবে। এই সিরিজ সফলভাবে আয়োজন করতে পারলে আন্তর্জাতিক দলগুলো আবার পাকিস্তানে যাবে বলে তাদের ধারনা। এই ব্যাপারে সরফরাজ বলেন, ‘আমি নিশ্চিত, গোটা দুনিয়া বিশ্ব একাদশের এই সফর দিয়ে পাকিস্তানকে বুঝতে পারবে। তারা বুঝবে পাকিস্তানিরা আসলে শান্তিপ্রিয়, অতিথিপরায়ণ, ক্রিকেটপ্রেমী।’
তবে জঙ্গিবাদের কারণে দেশটিতে এখনো সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার সমস্যা রয়েছে। কয়েকদিন পর পরই পাকিস্তানের বিভিন্ন শহরে বোমা হামলার খবর পাওয়া যায়। বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে সিরিজ উপলক্ষে লাহোরে অবশ্য কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে পাঞ্জাব প্রাদেশিক সরকার।
বিশ্ব একাদশ স্কোয়াড: ফাফ ডু প্লেসি (অধিনায়ক), হাশিম আমলা, তামিম ইকবাল, জর্জ বেইলি, পল কলিংউড, বেন কাটিং, ডেভিড মিলার, গ্রান্ট এলিয়ট, টিম পেইন, থিসারা পেরেরা, ইমরান তাহির, ড্যারেন স্যামি, মরনে মরকেল, স্যামুয়েল বদ্রি।