তামিমের উইকেটকেই ‘টার্নিং পয়েন্ট’ মানছেন জহুরুল

আপডেট: নভেম্বর ১৭, ২০১৬, ১১:৪৩ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক
ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার কারণেই হেরে চলছে চিটাগং ভাইকিংস। তামিমের পর কথাটা স্বীকার করে নিলেন অভিজ্ঞ ওপেনার জহুরুল ইসলাম।
বৃহস্পতিবার হোম গ্রাউন্ডে ম্যাচ হারার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জহুরুল দুষলেন নিজেদের ব্যাটিংকেই, ‘আমাদের সমস্যা ব্যাটিংয়ে। আমার মনে হয়, এই উইকেটে ১৪৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করা সম্ভব ছিল। বোলাররা ভালো করেছে। প্রথম ৬ ওভারে আমরা পাওয়ার প্লে ব্যবহার করতে পারিনি। পাওয়ার প্লের ভেতরে একটা উইকেট হারিয়েছি। পাওয়ার প্লের পরের ওভারে আরও একটি উইকেট হারিয়েছি। আজ আমরা একজন ব্যাটসম্যান কম নিয়ে খেলেছি, তাই একটু চাপ পড়ে গেছে। এই জন্য ব্যাটসম্যানদের উচিত ছিল আরও একটু দায়িত্ব নিয়ে ব্যাটিং করা। শুরুতে আরও একটু ভালো ক্রিকেট খেলা।’
ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জহুরুল বলেছেন, ‘আমার হিসাবে ম্যাচ হাতছাড়া হয় তামিমের আউটে। সে তখন উইকেটে খুব ভালোভাবে থিতু ছিল। আমি ধারণা করছিলাম, ব্রাভো ওই ওভারটাই শেষ ওভার করবে। পরে হয়তো আর আসবে না। এরপর ওদের পঞ্চম বোলার হিসেবে হয়তো সৈকতকে বা আলাউদ্দিন বাবুকে দিয়ে বল করাতে হবে। ওখানে একটা টার্নিং পয়েন্ট ছিল। আরেকটা টার্নিং পয়েন্ট ছিল মোহাম্মদ নবী আর গ্র্যান্ট এলিয়টের একই ওভারে ফেরা। এলিয়টের ওটা যদি ছয় হতো, হতে পারে এলিয়ট আর মিলন মিলে খেলাটা আরও ক্লোজের দিকে নিয়ে যেত।’
তামিম ইকবালকেই ম্যাচ জেতানোর দায়িত্ব নিতে হবে বলে মনে করছেন জহুরুল ইসলাম, ‘তামিম তো আমাদের মূল খেলোয়াড়। তবে ওর ওপর নির্ভরশীল বলা যায় না। ও রান করলে দেখা যায় আমাদের ভালো সংগ্রহ হয়। তখন আবার দেখা যায় বোলাররা ভালো করে না। অবশ্যই একজন মানুষের একার পক্ষে ম্যাচ জেতানো সম্ভব না। টি-টোয়েন্টি যতই ছোট হোক, ম্যাচ জিততে আপনার চার-পাঁচটা ম্যাচ উইনার লাগবে। বুদ্ধি করে বোলিংও করতে হবে। আজকে আমাদের বোলাররা ভালো করেছে। যদি ওরা এভাবে বল করে যেতে পারে, ব্যাটসম্যানরা যদি ফিরতে পারি তাহলে পরের ম্যাচগুলো আশা করি জিততে পারব।’-বাংলা ট্রিবিউন