‘তালিবান মনে করে আমার শরীরটাও ওদের’, বিস্ফোরক দাবি একমাত্র আফগান পর্ন তারকার

আপডেট: জানুয়ারি ২৫, ২০২২, ৬:৫০ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


বর্তমানে আর আফগানিস্তানে থাকেন না তিনি। বসবাস করেন ব্রিটেনে। কিন্তু তালিবান জমানার প্রথম পর্যায়ে শিশু হিসেবে প্রত্যক্ষ করেছিলেন জেহাদি শাসনের ভয়ানক ছবিটা। তাই বিদেশ বিভুঁইয়ে বসে শিউরে উঠছেন এই মুহূর্তে তাঁর স্বদেশ কী অবস্থায় রয়েছে তা ভেবে। তিনি, ইয়াসমিনা আলি একজন বিখ্যাত পর্ন তারকা। আফগানিস্তানের সবচেয়ে খ্যাতিমান, অনেকেরই মতে একমাত্র পর্ন তারকা তিনি।

নয়া আফগান যুগে সেই ইয়াসমিনাকেই ক্ষোভ উগরে দিতে দেখা গেল তালিবানরাজের বিরুদ্ধে। তাঁর দাবি, তালিবান মুখে যাই বলুক, তারাও পর্ন দেখে। সম্প্রতি ‘আই হেট পর্ন’ নামের এক পডকাস্টে এবিষয়ে কথা বলেন তিনি। সঞ্চালক টমি ম্য়াকডোনাল্ডকে তিনি বলেন, ”ওরা আমার কনটেন্টগুলিকে ঘৃণা করে, কারণ ওরা চায় না পর্নের সঙ্গে আফগানিস্তানের নাম জড়িয়ে যাক। হ্যাঁ, আমি আফগান। তাতে কী? হয়তো তালিবানও আমাকে দেখে। আমি নিশ্চিত ওরা আমার কথা আগেই শুনেছে। এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। একবার ‘আফগান পর্ন’ লিখে সার্চ করুন। আপনারা আমাকেই খুঁজে পাবেন। কেবল ওই দু’টি শব্দ লিখলে আমার নামই আসবে।”

তাঁর ‘শরীরের’ অধিকার যে কেবল তাঁরই, সেকথাও জোরের সঙ্গে বলতে শোনা গিয়েছে ইয়াসমিনাকে। তাঁর কথায়, ”ওরা ভাবে, আমার কত সাহস আমি নিজের শরীর দেখাই! আসলে ওরা মনে করে আমার শরীরটাও ওদের দখলে। এবং আমি আমার শরীর নিয়ে কী করব সেটাও ওরাই ঠিক করবে। আমার কোনও অধিকারই নেই তাতে। আর সেটা যদি ফলাতে যাই, তাহলে আর আমি আর আফগান থাকব না।”
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ