তাসকিনের ‘স্বপ্নের উইকেট’

আপডেট: আগস্ট ২২, ২০১৭, ১:৩৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


তিন বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে টেস্ট খেলেছেন মাত্র চারটি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দলে সুযোগ পেয়ে তাই উচ্ছ্বসিত তাসকিন আহমেদ। বাংলাদেশের তরুণ পেসারের লক্ষ্য, প্রতিপক্ষের দুই সেরা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে দেয়া।
বাংলাদেশ সফরে আসা অস্ট্রেলিয়া দলে তরুণ খেলোয়াড়ের ছড়াছড়ি। তবে অধিনায়ক স্মিথ এবং তার ডেপুটি ওয়ার্নারের কথা আলাদা। টেস্ট ক্রিকেটে দুজনের রানই পাঁচ হাজারের ওপরে। তাই যে কোনও বোলারের আরাধ্য উইকেট স্মিথ-ওয়ার্নার। গতকাল মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে তাসকিনও জানালেন সে কথা, ‘টেস্ট ক্রিকেটে প্রত্যেকটি উইকেটই গুরুত্বপূর্ণ। অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা খুব ভালো ফর্মে আছে। অভিজ্ঞরা তো আছেই। নতুনদের মধ্যে হ্যান্ডসকম্ব খুব ভালো করছে। তবে আমার স্বপ্নের উইকেট ওয়ার্নার-স্মিথ।’
দলকে ‘উইনিং স্পেল’ উপহার দেওয়ার সংকল্প তাসকিনের। তিনি চান রিভার্স সুইং দিয়ে প্রতিপক্ষকে বিপদে ফেলতে, ‘উইনিং স্পেল মানে পাঁচ-সাত উইকেট নেওয়া নয়, বরং কয়েকটি ভালো ওভার করা। দেখা গেল স্পিনাররা পাঁচ-সাতটা উইকেট নিয়েছে। এর মাঝে আমিও দুটো উইকেট নিয়েছি, যা উপকারে এসেছে দলের। আমি এমন কিছুই করতে চাই, পুরোনো বলে রিভার্স সুইং করতে চাই।’
অভিজ্ঞতায় কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও ধীরে ধীরে নিজেকে প্রস্তুত করছেন তাসকিন, ‘সত্যি কথা বলতে, আমি খুব বেশি টেস্ট খেলিনি। তবে চারটা টেস্ট খেলেই আমার মনে হয়েছে ফরম্যাটটা অনেক কঠিন। আসলে টেস্টে প্ল্যান অনুযায়ী বোলিং করতে হয়, দরকার হয় গতির বৈচিত্র্য।’
এ মুহূর্তে জাতীয় দলে সবচেয়ে বেশি প্রতিযোগিতা পেসারদের মধ্যে। প্রথম টেস্টের দলে সুযোগ পেয়ে তাসকিন তাই দারুণ খুশি, ‘বাংলাদেশ দলে এখন অনেক ভালো খেলোয়াড় আছে। তাই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট দলে থাকতে পেরে আমি আনন্দিত, পাশাপাশি নিজেকে ভাগ্যবানও মনে করছি।’-বাংলা ট্রিবিউন