তাহিরের ঘূর্ণিতে বিধ্বস্ত নিউজিল্যান্ড

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৭, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



২০০৫ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে ইতিহাসের প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিল নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। ঘরের মাঠে সেদিন ৪৪ রানে হেরে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড।
গতকাল  ক্রিকেটের সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের এক যুগ পূর্তির দিনে একই মাঠে একমাত্র টি-টোয়েন্টিতে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হয় নিউজিল্যান্ড। প্রথম টি-টোয়েন্টির মতো এদিনও হার সঙ্গী করেছে কিউইরা। বলা চলে, সফরকারীদের সামনে স্বাগতিকরা পাত্তাই পায়নি। ইমরান তাহিরের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৭৮ রানে জিতেছে ফাফ ডু প্লেসির দল। ইডেন পার্কে ১৮৬ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১০ রানের মধ্যেই ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে নিউজিল্যান্ড। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ১৪.৫ ওভারে মাত্র ১০৭ রানেই গুটিয়ে যায় স্বাগতিকের ইনিংস। সর্বোচ্চ ৩৩ রান আসে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের ব্যাট থেকে।
নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপ গুঁড়িয়ে দিতে মাত্র ২৪ রানে ৫ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন তাহির। এটিই তার টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। এদিন ৫০ টি-টোয়েন্টি উইকেটের মাইলফলকও ছুঁয়েছেন ৩৭ বছর বয়সি লেগ স্পিনার।
এ ছাড়া ১৯ রানে ৩ উইকেট নেন পেসার আন্দিল ফেলুকওয়ে। তৃতীয় ওভারে পরপর দুই বলে ২ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডকে প্রথম ধাক্কাটা দিয়েছিলেন অবশ্য আরেক পেসার ক্রিস মরিস।
এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৮৫ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। সর্বোচ্চ ৬২ রান করেন হাশিম আমলা। তার ৩৪ বলের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৯টি চার ও একটি ছক্কায়।
এ ছাড়া ফাফ ডু প্লেসি ২৫ বলে ৩৬, জেপি ডুমিনি ১৬ বলে ২৯ ও ‘বার্থ ডে বয়’ এবি ডি ভিলিয়ার্স ১৭ বলে ২৬ রান করে দলের বড় সংগ্রহে অবদান রাখেন।
নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম নেন ২টি করে উইকেট। বেন হুইলারের ঝুলিতে জমা পড়ে এক উইকেট। রাইজিংবিডি

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ