তাহেরপুর পৌরসভায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় খন্দকার সায়লা পারভীন মেয়র নির্বাচিত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪, ১০:৩৭ অপরাহ্ণ


বাগমারা প্রতিনিধি:রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে খন্দকার সায়লা পারভীন এবং কাউন্সিলর পদে আমিনুল হক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হচ্ছেন। বৃহস্পতিবার (২২ফেব্রুয়ারি) ওই দুই পদের অন্যান্য প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেয়ায় মেয়র ও নয় নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে কোন ভোট হচ্ছেনা।

জানা যায়, তাহেরপুর পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় মেয়র পদ শূন্য হয় এবং একই পৌরসভার নয় নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রইচ উদ্দিন মৃত্যু বরন করায় ওই পদ শূণ্য হয়।

এদিকে চলতি বছরের ২৪ জানুয়ারি ওই দুই পদে উপ-নির্বাচনের জন্য গণ-বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তফশিল ঘোষণা করেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহিনুর ইসলাম প্রামানিক। গণ-বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী আগামী ৯মার্চ ওই দুই পদে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়। ১৩ ফেব্রুয়ারি ছিল মনোনয়নপত্র জমাদানের সময়। এতে মেয়র পদে খন্দকার সায়লা পারভীন ও তানভীর ইসলাম ফেরদৌস এর মনোনয়নপত্র স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বৈধ ঘোষনা করা হয়েছে। এছাড়াও নয় নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে খয়রা গ্রামের সাইফুল ইসলাম, একই গ্রামের সোনালপাড়ার সোহেল রানা, চকপাড়ার ওসমান কাজী, সরকারপাড়ার আমিনুল হক, দালানপাড়ার ওহিদুল ইসলাম এবং খয়রা গ্রামের আখতার হোসেনসহ ছয়জন মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে মেয়র পদে তানভীর ইসলাম ফেরদৌস তার মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন। অপরদিকে কাউন্সিলর পদে আমিনুল হক ছাড়া অপর প্রার্থীরাও তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন।

তাহেরপুর পৌরসভা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ জানান, মেয়র পদে তানভীর ইসলাম ফেরদৌস তার মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেয়ায় খন্দকার সায়লা পারভীন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হচ্ছেন। এছাড়াও কাউন্সিলর পদে ছয়জন প্রার্থীর মধ্যে পাঁচজন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেয়ায় আমিনুল হক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হচ্ছেন যা রিটার্নিং কর্মকর্তা ঘোষণা করবেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ