তাহেরপুর পৌরসভায় নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা সুখে-দুঃখে জনগণের পাশে থাকতে হবে : মেয়র লিটন

আপডেট: মার্চ ৬, ২০২১, ৯:৪৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র আব্দুল কালাম আজাদসহ সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। শনিবার (৬ মার্চ) পৌরসভার শেখ রাসেল অডিটোরিয়ামে এ উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু বাক্কার মৃধা মুনসুরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
প্রধান অতিথির বক্তব্য মেয়র বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর পিতার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দেশের মানুষের উন্নয়নে কাজ করে চলেছেন। দেশের উন্নয়নের সাথে সাথে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করতে জনগণ রায় দিয়েছে নৌকার। জনগণের প্রতিনিধি হয়ে তাহেরপুরের উন্নয়ন করে চলেছে মেয়র আবুল কালাম আজাদ। সেই উন্নয়নের কারণে জনগণ তৃতীয় বারের মতো মেয়র হিসেবে কালামকেই বিজয়ী করেছেন। একজন নেতার কাজ হবে মানুষের পাশে থাকা। সুখে-দুঃখে বিপদে-আপদে সর্বদায় জনকল্যাণে কাজ করতে হবে।
রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, তাহেরপুর হবে উন্নয়নের কেন্দ্রবৃন্দ। তাহেরপুরে নির্বাচনের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায় আওয়ামী লীগের অবস্থান কোথায়। জনগণ বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করেছে। জনগণ উন্নয়নে বিশ্বাসী। আওয়ামী লীগ সরকারের দক্ষ নেতৃত্বে দেশে চলছে ব্যাপক উন্নয়নমূলক কার্মকান্ড। জামায়াত-বিএনপি মানুষের কাছ থেকে স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছিল। কি না বর্বর নির্যাতন চালানো হয়েছিল তাদের সময়ে। তারা আবার ক্ষমতায় আসতে চায়। মানুষ আর মরতে চায় না। তারা শান্তির নামে অরাজকতা সৃষ্টির পায়তারা শুরু করেছে। আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে শতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।
তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুর রহমান বিপ্লবের পরিচালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহীর-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক। তিনি বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার টানা ক্ষমতায় থাকায় পাল্টে গেছে প্রত্যন্ত এলাকাসহ দেশের উন্নয়ন চিত্র। ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, পৌরসভা এমনকি পুরো উপজেলা জুড়ে শুধু উন্নয়নের ছোঁয়া। ব্যাপক উন্নয়নের ফলে গ্রামের চিত্র এখন শহরে রূপ নিচ্ছে। নৌকায় ভোট দিয়েছে বলেই দেশবাসী উন্নয়ন দেখতে পাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে তাহেরপুর পৌরসভার যে উন্নয়ন হয়েছে তা চোখে পড়ার মতো। তাহেরপুরবাসী নৌকায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করার ফলে সম্ভব হয়েছে। ব্যবসা-বাণিজ্যে প্রসার ঘটেছে। কোনো প্রকার আতঙ্ক ছাড়াই লোকজন চলাফেরা করতে পারছে।
উপজেলার সাথে জেলা সদরের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটেছে। প্রশস্ত করা হচ্ছে রাস্তা। বৃদ্ধি পেয়েছে মানুষের আয়। এমপি এনামুল হক আরো বলেন, জনগণের ভোট নিয়ে নির্বাচিত হলেই কাজ শেষ হয়ে যায় না। জনগণের চাহিদার প্রতিফলন ঘটাতে হবে। উন্নয়নে ভরে দিতে হবে তাহেরপুরের পৌর এলাকা। জনগণের সাথে বেইমানি করা যাবে না। উন্নয়নের স্বার্থে সবাই নৌকার বিজয় ঘটিয়েছে।
বিশেষ অতিথি হিসেবে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন. জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য মেরাজ উদ্দীন মোল্লা, সিনিয়র সহসভাপতি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, নব-নির্বাচিত মেয়র আবুল কালাম আজাদ।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দীন সুরুজ, ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, দপ্তর সম্পাদক নুরুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ আক্তার বেবী, তাহেরপুর পৌরসভা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ তোফাজ্জল হোসেন, আমজাদ হোসেন, কাউসার আলী, সত্যজিৎ রায় তোতা, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল হক শাহী, রফিকুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি মরিয়ম বেগম, সাধারণ সম্পাদক কহিনুর বানু, তাহেরপুর পৌর যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আসাদুল ইসলাম আসাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা, তাহেরপুর কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আমিরুজ্জামান তুহিন মৃধা, সাধারণ সম্পাদক কোরবান আলী প্রমুখ।
এছাড়াও উপজেলা, ইউনিয়ন ও তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে নব-নির্বাচিত মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ