তিন কন্যার বৈশাখী অ্যালবাম

আপডেট: এপ্রিল ৫, ২০১৭, ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



পহেলা বৈশাখে এক অ্যালবামে কণ্ঠ দিয়েছেন জনপ্রিয় তিন সংগীতশিল্পী বিউটি, সালমা ও ঐশী। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সঙ্গীতার ব্যানারে আনন্দের গান ১, ২ ও ৩ এর ধারবাহিকতায় এবার ‘আনন্দের গান-৪’ শিরোনামে প্রকাশিত হতে যাচ্ছে এই অ্যালবাম।
তিনটি গান নিয়ে সাজানো হয়েছে বৈশাখী অ্যালবামটি। সবগুলো গানের সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেছে সজীব দাস। তারেক আনন্দের কথায় এতে কণ্ঠ দিয়েছেন সংগীতশিল্পী বিউটি, সালমা, ও ঐশী। অ্যালবামটি সাজানো হয়েছে লোকসংগীতে। বিউটি কণ্ঠ দিয়েছেন ‘প্রেমসাধনা’, সালমার কণ্ঠে শোনা যাবে ‘সুখের বাত্তি’ ও ঐশীর কণ্ঠে ‘জীবনচাকা’ শিরোনামের গান।
অ্যালবামে নিজের গান প্রসঙ্গে বিউটি বলেন, ‘শূন্য মনে প্রেমখানা ওড়াউড়ি করে, শুদ্ধ মনেতেই প্রেম বসত গড়ে, জগৎ সংসারের প্রেম কতনা বিচিত্র, খাঁটি প্রেম পাইতে হইলে, খাঁটি মানুষ হইতে হয়…’। গানের কথা চমৎকার। সজীব দাস দাদা সুরও করেছেন সুন্দর। শ্রোতারা আমার কণ্ঠে যে ঢঙের গান শুনতে চান ঠিক সেরকমই হয়েছে গানটি। আশা করছি শ্রেতাদেরও ভালো লাগবে। সালমা বলেন, ‘সুখের বাত্তি’ গানটি অনেক ভালো লেগেছে। শ্রোতাদের গানটি শুনে মন ভরবে।
ঐশী বলেন, ‘আলোতে কষ্ট আন্ধারেও কষ্ট, কষ্ট পরান সহে না, দিনশেষে কষ্ট বাড়ে বন্ধু তোর যন্ত্রণায়, শূন্যের ওপর দাঁড়াইয়াছি, জীবন চাকা ঘোরে না…। গানের কথা, সুর ও সংগীত এক কথায় অসাধারণ। আমি আমার সর্বস্ব দিয়ে গানটি গেয়েছি। আশা করছি শ্রোতাদের ভালো লাগবে।’
সুরকার ও সংগীত পরিচালক সজীব দাস বলেন, ‘এই প্রথম ফোক গান করার সাহস করলাম তারেক আনন্দ ভাইয়ের জন্য। তিন শিল্পীর কণ্ঠেই শোনা যায় বেশিরভাগ ফোক গান। আমি চেষ্টা করেছি তাদের গায়কী তুলে আনতে। কতটা পেরেছি সেটা শ্রোতারাই বলবেন’।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ