তিন হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করলো রাবি প্রশাসন

আপডেট: এপ্রিল ১৩, ২০২০, ১০:৫৯ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিনিধি


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে তৈরি করা হয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার-সোনার দেশ

বিশ্বব্যাপী হানা দেয়া করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে বারবার হাত ধোঁয়া ও জীবাণুমুক্ত করার কথা বলা হচ্ছে। হাতকে পরিষ্কার ও জীবাণু মুক্ত রাখার জন্য বহুলভাবে ব্যবহৃত হয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার।
কিন্তু বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস আক্রমণের পর থেকেই বাজারে সংকট দেখা দিয়েছে হ্যান্ডওয়াশ ও স্যানিটাইজারের। এরই পরিপ্রেক্ষিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) রসায়ন বিভাগের সহযোগিতায় ৩ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
সোমবার (১৩ এপ্রিল) বেলা ১১ টায় আনুষ্ঠানিকভাবে বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। এসময় স্যনিটাইজারগুলো রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র, সংসদ সদস্যবৃন্দ, পুলিশ কমিশনার, জেলা প্রশাসক বরাবর পাঠানো হয়। তাদের মাধ্যমে প্রয়োজন অনুসারে প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে এসবগুলো বিতরণ করা হবে বলে জানা গেছে।
এর আগেও করনাভাইরাস রোধে বিভিন্নভাবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সহযোগিতা করেছেন। এরই প্রেক্ষিতে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কৃমার সাহা বলেন, এই ভাইরাস রোধে এর আগেও প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১ কোটি টাকা প্রদান করেছিল বিশ্ববিদ্যালয়। শুধু তাই নয় এই মহামারিতে সহযোগিতার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকটি শিক্ষক এক দিনের বেতন প্রদান করবে। বিষয়গুলো অবশ্যই প্রশংসার দাবিদার।
এবিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান বলেন, দেশজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করেছে। এর জন্য প্রয়োজন সচেতন এবং পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা। একারণে আমি স্যনিটাইজার তৈরির উদ্যোগ নেই। পরে মাদক অধিদফতরের অনুমতি সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় উপকরণ ক্রয় এবং রসায়ন বিভাগের সহযোগিতায় এটি তৈরি করি। যেহেতু বলা যাচ্ছে না এই ভাইরাস কত দিন স্থায়ী হবে। তাই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবার পরিস্থিতি সাপেক্ষে সব সময়ই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে।
বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপউপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এম.এ বারী, প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমানসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক মন্ডলী প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ