‘তুলে নিয়ে যাওয়া’ চিকিৎসকের সন্ধান দাবি পরিবারের

আপডেট: নভেম্বর ১১, ২০১৬, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



নগরী থেকে লতিফুল খাবীর ওরফে আনোয়ার হোসেন (৫৫) নামে এক হোমিও চিকিৎসককে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিচয়ে ‘তুলে নিয়ে যাওয়া’ হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তার সন্ধান দাবিতে পরিবারের পক্ষ থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।
গত ১৭ অক্টোবর সন্ধ্যায় নগরীর হেতেমখাঁ ছোট মসজিদ এলাকায় আনোয়ার হোসেনের নিজস্ব ‘ম্যাথমেটিকস হোমিও হল’ থেকে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা।
রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাবে গতকাল বেলা ১১টায় আয়োজিত ওই সংবাদ সম্মেলনে আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী নাসরিন সুলতানা (৪০) তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, ১৭ অক্টোবর সন্ধ্যায় সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে ৬ জন ব্যক্তি তার স্বামীকে একটি মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে যান।
ওই দিন রাত থেকে পরদিন সন্ধ্যা পর্যন্ত তারা নগরীর সব থানা, ডিবি অফিস, আদালত ও কারাগারে খোঁজ নিয়েও আনোয়ার হোসেনের সন্ধান পান নি। এ ঘটনায় ১৮ অক্টোবর বোয়ালিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন নাসরিন সুলতানা। কিন্তু এখনও পর্যন্ত আনোয়ার হোসেনের সন্ধান মেলেনি।
নাসরিন সুলতানা বলেন, তার স্বামী একজন নিরপরাধ ব্যক্তি। তার নামে থানায় কোনো মামলা বা অভিযোগ নেই। গত ২৩ দিন ধরে স্বামীর খোঁজ না পেয়ে ভাড়া বাসায় দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে তিনি চরম বেকায়দায় পড়েছেন। তাই আনোয়ার হোসেনকে দ্রুত খুঁজে বের করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে দাবি জানিয়েছেন নাসরিন সুলতানা।
সংবাদ সম্মেলনে নিখোঁজের মেয়ে লুৎফুন নেসা (৮), ছেলে একরামুল ইসলাম (৪), শ্বশুর জয়ফুল ইসলাম (৬০), ছোট ভাই মনোয়ার হোসেনসহ (৪০) কয়েকজন আত্মীয়-স্বজন উপস্থিত ছিলেন।
নিখোঁজ আনোয়ারের ব্যাপারে জানতে রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র সিনিয়র সহকারী কমিশনার ইফতে খায়ের আলম বলেন, ‘চিকিৎসক আনোয়ার হোসেনকে পুলিশ বা ডিবি পুলিশ আটক করেনি। কেউ তাকে পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে যেতে পারে। এ বিষয়ে থানায় একটি জিডি হয়েছে। তাকে উদ্ধারে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত আছে।’