ত্ব-হা ‘ব্যক্তিগত কারণে আত্মগোপনে’ ছিলেন: ডিবি

আপডেট: জুন ১৮, ২০২১, ৯:৩৬ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


এক সপ্তাহ ‘নিখোঁজ’ থাকার পর ফিরে আসা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ‘ব্যক্তিগত কারণে আত্মগোপনে’ গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ।
শুক্রবার বিকেলে রংপুর ডিবি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মহানগর পুলিশের (আরএমপি) ক্রাইম ডিভিশনের উপ-কমিশনার আবু মারুফ হোসেন বলেন, আবু ত্ব-হা গাইবান্ধায় তার এক বন্ধুর বাসায় ‘আত্মগোপনে’ ছিলেন।
“গাইবান্ধার ত্রিমাথায় তার বন্ধু সিয়ামের মায়ের বাসায় আত্মগোপনে ছিলেন। তার সফরসঙ্গী আমির উদ্দিনের খোঁজও পেয়েছি। তাকেও ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়েছে।”
সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মারুফ হোসেন বলেন, আবু ত্ব-হা এবং তার তিন সঙ্গী রংপুর থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। কিন্তু গাবতলী থেকে তারা গাইবান্ধায় চলে যান।
“আজ আমরা গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারি, ত্ব-হা তার প্রথম স্ত্রীর বাড়িতে আছেন। সেখান থেকে তাকে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়।”
গত ১০ জুন রাত থেকে কোনো খোঁজ মিলছিল না আবু ত্ব-হা এবং তার সঙ্গী আব্দুল মুহিত, মোহাম্মদ ফিরোজ এবং গাড়িচালক আমির উদ্দিনের।
সেদিন বিকেল ৪টার দিকে ওই তিনজনসহ আবু ত্ব-হা রংপুর থেকে ভাড়া করা এক গাড়িতে ঢাকার পথে রওনা দেন। রাত আড়াইটার দিকে স্ত্রীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে তার কথাও হয়। কিন্তু তারপর থেকে তার ফোন বন্ধ পাওয়ার কথা বলেছিলেন তার স্ত্রী।
বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে ১১ জুন বিকেলে রংপুর কোতোয়ালি থানায় জিডি করেন ত্ব-হার মা আজেদা বেগম।
ত্ব-হার দ্বিতীয় স্ত্রী সাবিকুন্নাহারও ঢাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, পুলিশ সদর দপ্তর, র‌্যাব সদর দপ্তরসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে ঘুরতে থাকেন স্বামীর খোঁজে।
দশ দিন পেরিয়ে শুক্রবার দুপুরে রংপুর মহানগরীর মাস্টার পাড়া এলাকায় প্রথম স্ত্রী হাবিবা নূরের বাবার বাড়িতে উপস্থিত হন ত্ব-হা। পরে বেলা পৌনে ৩টার দিকে তাকে রংপুর কোতোয়ালি থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। সেখান থেকে তাকে নেওয়া হয় ডিবি কার্যালয়ে।
আবু মারুফ জানান, ত্ব-হা নিখোঁজের ঘটনায় থানায় দুটি জিডি হয়েছিল। তার মা এবং ত্ব-হার সঙ্গী আমিরুদ্দিনের ভাই ফয়সাল ওই জিডি দুটি করেছিলেন। তখন থেকে পুলিশ তাদের খোঁজে তদন্ত নামে।
কাশেম নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে তিনি মাস্টারপাড়ায় আবু ত্ব-হাকে দেখেন। সে সময় ত্ব-হা কোনো কথা বলেননি। মুখে আঙুল দিয়ে চুপ থাকার ইশারা করেছিলেন।
কে এই আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান
আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের প্রকৃত নাম আফছানুল আদনান। ৩১ বছর বয়সী এই যুবকের মায়ের নাম আজেদা বেগম এবং বাবা রফিকুল ইসলাম।
তার বাবার মৃত্যুর পর রংপুর নগরীর সেন্ট্রাল রোডে নানার বাড়িতে থেকে বড় হন তিনি। ত্ব-হা কারমাইকেল কলেজ থেকে দর্শন বিভাগে অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন। কোরআন শিক্ষার জন্য কিছুদিন স্থানীয় এক মাদরাসায় তালিমও নেন।
ওই সময় ত্ব-হা আহলে হাদিস আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত হন। এছাড়া তিনি লাইফ ফাউন্ডেশন, আলোর পথ এবং একাডেমিক কোরআন স্টাডিজ নামে কয়েকটি সংগঠনে সক্রিয় ছিলেন বলে তার মামা সিরাজুল ইসলাম জানিয়েছেন।
ত্ব-হার পারিবারিক বাড়ি রংপুর নগরীর সেন্ট্রাল রোডের আহলে হাদিস মসজিদ এলাকায়। তিনি প্রথম স্ত্রী হাবিবা নূরকে নিয়ে রংপুর নগরীর নিউ শালবন মিস্ত্রীপাড়া চেয়ারম্যান গলির একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন বিয়ের পর। ওই সংসারে তিন বছরের একটি মেয়ে এবং দেড় বছর বয়সী এক ছেলে রয়েছে ত্ব-হার। কয়েক মাস আগে ঢাকায় আরেকটি বিয়ে করেন ত্ব-হা । তার দ্বিতীয় স্ত্রী সাবিকুন্নাহার সারা ঢাকার মিরপুর আল ইদফান ইসলামী গার্লস মাদরাসার পরিচালক ও শিক্ষক। ত্ব-হা এ মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ