ত্যাগি নেতা হিসেবে মূল্যায়নের দাবি আ’লীগ নেতার

আপডেট: অক্টোবর ২৪, ২০২১, ১০:৫০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


আওয়ামী লীগের ত্যাগিদের মূল্যায়নের দাবি জানিয়েছেন মোহনপুরের ৩ নম্বর রায়ঘাটি ইউনিয়নের সুরঞ্জিত সরকার। এর আগে তিনি ২০১৬ সাল একই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক নৌকার প্রার্থী ছিলেন। এই বছরও তিনি নৌকা প্রতীকের প্রত্যাশী ছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত অন্য কেউ পেয়েছে। তার দাবি ত্যাগি নেতা হিসেবে তাকে মূল্যায়ন করা হয়নি।

রোবাবর (২৪ অক্টোবর) এমন অভিযোগ তুলে রাজশাহী সংবাদিক ইউনিয়নে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সুরঞ্জিত সরকার। এসময় তিনি লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। তার সঙ্গে ছিলেন- ইউনিয়নের বাসিন্দা ইউসুফ আলী, আবদুল মাজিদ, শান্ত কুমার।

সংবাদ সম্মেলনে সুরঞ্জিত সরকার বলেন, তিনি সাবেক নওগাঁ কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এবং রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। তিনি রাজনৈতিক কারণে ২০০৫ সালে রাস্তা অবরোধ মামলায় ২২ দিন ও ২০০৭ সালে ১/১১ এর সময় যৌথ বাহানির হাতে গ্রেপ্তার হয়ে শারীরিক নির্যাতনসহ ১৪ মাস ১০ দিন কার ভোগ করেছি।

এছাড়া ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের পর নাশকতাকারীদের প্রতিবাদ করায় জামায়াত-বিএনপির হামলায় শিকার হয়ে গুরুতর জখম হই। আমিসহ পরিবার, আত্মীয়স্বজন আওয়ামীলীগ। আমার রায়ঘাটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী এলাকায় আমি ছাড়া অন্য কোন প্রার্থী নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় নেই। প্রতিহিংসার কারণে ও অন্য কোন ভাবে প্রভাবিত হয়ে ইউনিয়নের নির্বাচিত কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীর ছেলেকে দলীয় মনােনয়ন পাইয়ে দেওয়া হয়েছে।

কেন্দ্রে প্রেরিত প্রার্থী তালিকায় ১ নম্বরে বাবল হোসেন ও আমাকে ৫ (পাঁচ) নাম্বারে নাম দিয়ে পাঠায়। কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মােতাবেক বিদ্রোহী ও বিদ্রোহী পরিবারের কোন সদস্য ও দলীয় পদ পদবী না থাকাদের দলীয় মনােনয়ন না দিয়ে দূর্দিনের ত্যাগিদের মূল্যায়ন করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় সকল তথ্য সঠিক ভাবে না পৌছায় তিনি মনোয়ন পাননি।

এক প্রশ্নের উত্তেরে তিনি বলেন, আমি আওয়ামী লীগকে ভালোবাসি। তাই দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে আমি নির্বাচন করবো না।তবে প্রত্যাশা রাখি আমাকে নির্বাচনের সুযোগ দেবে আওয়ামী লীগ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ