দক্ষিণ আফ্রিকার কুফা কাটাতে পারবেন তামিম?

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৭, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বর্তমান বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। টেস্ট, ওয়ানডে কি টি-টুয়েন্টি- তামিম মানেই রানের ফুলঝুরি ছোটানো। রেকর্ডই তার হয়ে কথা বলে। তবে টেস্ট ক্রিকেটে এখনও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজের নামের সুবিচার করতে পারেননি। বিস্ময়কর হলেও সত্যি প্রোটিয়াদের বিপক্ষে তার ব্যাটিং গড় মাত্র ১৬.৬০! যেখানে সব দেশ মিলিয়ে তার গড় প্রায় ৪০। তাই এবারের সিরিজে জোর আলোচনা, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কুফা কাটাতে পারবেন তো তামিম?
কতটুকু পারবেন তা সময়ই বলে দেবে। কারণ সিরিজ শুরুর আগেই যে বড় কুফায় পড়েছেন এ ওপেনার। প্রস্তুতি ম্যাচে পেশীতে টান লাগে তার। ফলে খেলা হয়নি সে ম্যাচ। ১৩ বলে ৫ রান করেই রিটায়ার্ড হার্ট। দক্ষিণ আফ্রিকার কন্ডিশনে মানিয়ে সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি। তবে মন্দের ভালো আঘাত গুরুতর নয় তার। ইনজুরি কাটিয়ে দুদিন আগেই অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি। সাবলীল ব্যাটিংও করেছেন নেটে। এখন দেখার বিষয় কতটুকু মানিয়ে নিতে পারেন তিনি।
তবে তামিম ভালো না খেললে বড় পরীক্ষায় পড়তে হবে টাইগারদের। কারণ দলের সবচেয়ে বড় তারকা বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে পাচ্ছে না তারা। তাই তামিম ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমের দিকেই চেয়ে আছে বাংলাদেশ। তার উপর অস্ট্রেলিয়া সিরিজ থেকেই ধুকছে বাংলাদেশের টপ অর্ডার। এক তামিম ছাড়া কেউই বলার মতো রান করতে পারেননি। তাই চলতি সিরিজে বাড়তি দায়িত্বই নিতে হচ্ছে তামিমকে।
দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে এর আগে ২টি টেস্ট খেলেছেন তামিম। ৪ ইনিংস ব্যাট করে ১৯.৫০ গড়ে করেছেন ৭৮ রান। সর্বোচ্চ রানের স্কোরটি ৩১। এমনকি ঘরের মাঠেও তাদের বিপক্ষে ব্যর্থ তামিম। ৪ টেস্টে করেছেন ১৪.৬৬ গড়ে মাত্র ৮৮ রান। শুধু প্রোটিয়াদের বিপক্ষেই নয় আফ্রিকা মহাদেশেই তামিমের ব্যাট এখন পর্যন্ত জ্বলেনি। ৪ ম্যাচে ৮ ইনিংসে ২৪ গড়ে করেছেন ১৯২ রান। সর্বোচ্চ ৪৯ রান করেছিলেন হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।
তবে আশার কথা এসব রেকর্ডই অনেক পুরনো। ২০১৪-২৫ থেকেই বদলে যেতে থাকেন তামিম। এখনকার তামিম অনেক পরিণত। দায়িত্ব নিয়ে খেলে থাকেন তিনি। এর মধ্যেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলা ২টি টেস্টের পারফরম্যান্স খারাপ নয় তার। ২০১৫ সালে ২টি টেস্টে ২ ইনিংস ব্যাট করেছিলেন। একটিতে পেয়েছিলেন হাফসেঞ্চুরি। এখন পর্যন্ত প্রোটিয়াদের বিপক্ষে এটাই তামিমের সেরা স্কোর। তাই আশা করাই যায় এবার অন্য তামিমকেই দেখবে ক্রিকেট বিশ্ব।