দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে তৎপর আইসিটি বিভাগ

আপডেট: এপ্রিল ৬, ২০১৭, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে সরকার নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তরুণ প্রজন্মকে দক্ষ করে তোলার লক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে সরকার। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ সূত্র জানিয়েছে, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে তরুণ প্রজন্মকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য মানবসম্পদ উন্নয়নের নানা প্রকল্প ও কর্মপরিকল্পনা নিয়েছে সরকার।
এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব ও ভাষা প্রশিক্ষণ, ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড অনট্রাপ্রেনিউরশিপ একাডেমি, শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার, চুয়েট আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর, দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলায় প্রশিক্ষণ, ইন্টারঅ্যাকটিভ মাল্টিমিডিয়া ডিজিটাল টেক্সট বুক, আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প, মোবাইল গেম ও অ্যাপ্লিকেশন তৈরির প্রশিক্ষণ, বিশেষায়িত ল্যাব, ওয়ান স্টুডেন্ট ওয়ান ল্যাপটপ। অন্যদিকে ২১ মার্চ মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে গবেষণার জন্য ফেলোশিপ এবং উদ্ভাবনীমূলক কাজের জন্য অনুদান প্রদান সম্পর্কিত (সংশোধিত) নীতিমালার-২০১৬ খসড়ার অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এতে অনুদান বাড়ানো হয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিখাতের (আইসিটি) গবেষণার জন্য ফেলোশিপ এবং উদ্ভাবনীমূলক কাজে। এখন থেকে এ কাজের জন্য অনুদান দেয়া হবে ৩০ হাজার টাকা। আগে নির্দিষ্ট কোনো পরিমাণ ছিল না।
এদিকে আইসিটি শিল্পের বিকাশে হাইটেক ও সফটওয়্যার পার্ক এবং বিজনেস ইনকিউবেশন সেন্টারের নির্মাণ কাজ চলছে দ্রুত গতিতে। গাজীপুরের কালিয়াকৈর, যশোর, সিলেট, রাজশাহী, নাটোরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে এসব পার্ক ও ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণ কাজ চলছে। আইটি খাতে বিদেশি বিনিয়োগ বৃদ্ধি এবং দেশীয় আইসিটি শিল্পের প্রসারে এসব পার্ক ও ইনকিউবেশন সেন্টার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাছের বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের পরিপূর্ণ সুফল জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার পাশাপাশি মেধাবীদের প্রযুক্তি নির্ভর আধুনিক কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং দেশি-বিদেশি উদ্যোক্তাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগযোগ্য বিশ্বমানের পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষেই এসব হাইটেক সিটি, পার্ক, আইটি ভিলেজ ও সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক নির্মাণ করছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ