দিনাজপুরে নারী ক্রিকেটারকে যৌন হয়রানি || নতুন করে তদন্ত কমিটি গঠন

আপডেট: জুলাই ১০, ২০১৭, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দিনাজপুরে নারী ক্রিকেটারকে কোচ কর্তৃক যৌন হয়রানির ঘটনায় ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছিল। তবে আপত্তির মুখে ক্রিকেট কোচ আবু সামাদ মিঠুর বিরদ্ধে পূর্ব গঠিত তদন্ত কমিটি বাতিল করে নতুন করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
যৌন হয়রানির শিকার নারী ক্রিকেটারের বাবার লিখিতভাবে আপত্তির মুখে ওই কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি গঠন করেন জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম।
ঘটনা তদন্তে প্রথমে দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান এবং সুব্রত মজুমদার ডলার ও মিলি চৌধুরীকে সদস্য করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছিলেন জেলা প্রশাসক। আপত্তির মুখে রোববার ওই কমিটি বাতিল করেন জেলা প্রশাসক নিজে এবং নতুন তদন্ত কমিটি গঠন করেন তিনি।
যৌন হয়রানির শিকার নারী ক্রিকেটারের বাবা তার লিখিত আপত্তিতে উল্লেখ করেন, ‘তদন্ত কমিটির দুই সদস্য যথাক্রমে সুব্রত মজুমদার ডলার ও মিলি চৌধুরী প্রচেষ্টা ক্রিকেট কোচিং সেন্টারের সভাপতি ও সহ-সভাপতি। যার বিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে সেই আবু সামাদ মিঠু একই প্রতিষ্ঠানের (প্রচেষ্টা ক্রিকেট কোচিং সেন্টার) সাধারণ সম্পাদক।’
তাই তদন্ত কমিটির রিপোর্ট নিয়ে তিনি শঙ্কা প্রকাশ করেন। এ কারণেই সুব্রত মজুমদার ডলার ও মিলি চৌধুরীকে তদন্ত কমিটি থেকে বাদ দিয়ে নতুন নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানান যৌন হয়রানির শিকার প্রমীলা ক্রিকেটারের বাবা।
দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম লিখিত আপত্তি পাওয়ার কথা নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ বিষয়ে লিখিত আপত্তি পাওয়ার পর আজ (রোববার) পূর্বের তদন্ত কমিটি বাতিল করে দিনাজপুর জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম মাসুদ রানাকে প্রধান করে সাত সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে ৫ কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।’
উল্লেখ্য, আবু সামাদ মিঠু দিনাজপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নিয়োগকৃত দিনাজপুরের কোচ। নারী ক্রিকেটারদের যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মিঠুকে ইতোমধ্যে বিসিবি এবং দিনাজপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
এদিকে যৌন নিপীড়নকারী আবু সামাদ মিঠুর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে বেশ কিছুদিন ধরেই আন্দোলন করে আসছে দিনাজপুর নারী নির্যাতন প্রতিরোধ সম্মিলিত জোটসহ জেলার বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন। জেলা প্রশাসনের পক্ষে আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা করায় উপ্তত্ত হয়ে ওঠে দিনাজপুর।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ