দিনাজপুরে শীর্ষ জঙ্গি রাজিব গান্ধীসহ তিনজনকে আদালতে হাজির

আপডেট: জুলাই ৪, ২০১৭, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ

দিনাজপুর প্রতিনিধি


দিনাজপুর জেলা ইসকন মন্দির কমিটির সভাপতি ও পল্লি চিকিৎসক বীরেন্দ্র নাথ রায় হত্যা চেষ্টা মামলার আসামি এবং শীর্ষ জঙ্গি রাজিব গান্ধীসহ তিনজনকে কড়া পুলিশ প্রহরায় আদালতে হাজির করে পরবর্তী তারিখ ১৩ আগস্ট দিন ধার্য করা হয়েছে।
আদালত সূত্রে জানায়, গতকাল সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় দিনাজপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লুৎফর রহমানের আদালতে চাঞ্চল্যকর মামলার আসামি শীর্ষ জঙ্গি রাজিব ওরফে সুজন ওরফে জাকির ওরফে সুবাস ওরফে রাজিব গান্ধী ওরফে জাহাঙ্গীর আলম (৩২) এবং তার সহযোগী নব্য জেএমবির এহসার সদস্য গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের শরিফুল ইসলাম ওরফে ডেনিস ওরফে জিৎ (২৮) ও লালমনিরহাট সদর উপজেলার বানভাষা গ্রামের মোসাব্বিরুল আলম খন্দকারকে (২৫) কড়া পুলিশ প্রহরায় হাজির করা হয়। এ মামলার অপর চার আসামি উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে মুক্ত রয়েছে। মামলাটি তদন্ত করছেন দিনাজপুর ডিবি পুলিশের এসআই বজলুর রশিদ। বিচারক মামলাটি পরবর্তী তারিখ ১৩ আগস্ট তদন্ত রিপোর্ট দাখিলের জন্য দিন ধার্য করে আসামিদের জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দেন।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর রাত সাড়ে ১১টায় দিনাজপুর জেলা ইসকন মন্দির কমিটির সভাপতি ও পল্লি চিকিৎসক বীরেন্দ্র নাথ রায় (৫৫) তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চিরিরবন্দর উপজেলার রানীরবন্দর বাজার থেকে বাইসাইকেল যোগে বাড়ির দিকে রওনা হয়। রাত ১২টায় তার বাড়ির সন্নিকটে পৌঁছলে পিছন দিক থেকে জঙ্গি সদস্যরা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গুলি করলে তিনি গুলিবিদ্ধ হয়ে রাস্তায় পড়ে যান। ঘটনার পর তাকে উদ্ধার করে প্রথমে দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। দীর্ঘদিন চিকিৎসার পর বীরেন্দ্র নাথ সুস্থ হলেও শারীরিকভাবে অক্ষম হয়ে গেছে। এই ঘটনায় আহতের ছেলে কমল রায় বাদী হয়ে চিরিরবন্দর থানায় মামলা দায়ের করে। মামলাটি দিনাজপুর ডিবি পুলিশ তদন্ত করছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ