দিল্লি পুরসভাতেও ঝাড়ু-ঝড়ে কাত বিজেপি! দেড় দশক পর ক্ষমতা হারানোর মুখে বিজেপি

আপডেট: ডিসেম্বর ৭, ২০২২, ২:০৩ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


ইঙ্গিত মিলেছিল বুথফেরত সমীক্ষাতেই। সেই সম্ভাবনাকে সৎিয় করে দিল্লি মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন এবার বিজেপির থেকে ছিনিয়ে নিতে চলেছে আম আদমি পার্টি। এখনও পর্যন্ত ২৫০ আসনের মধ্যে ১৩২টি আসনে হয় জিতেছে নয়তো অনেক ব্যবধানে এগিয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দল।

সবকিছু ঠিক থাকলে এই ‘ট্রেন্ড’ বজায় রেখে ঝাড়ু-ঝড়ই যে শেষ পর্যন্ত বজায় থাকবে সে ব্যাপারে একরকম নিশ্চিত ওয়াকিবহাল মহল। ফলে দেড় দশক পর বিজেপির হাতছাড়া হতে চলেছে দিল্লি পুরসভা।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, বিজেপি হয় এগিয়ে নয় বিজয়ী ১৯৬টি আসনে। ফয়সলা হওয়া ১৪৯টি আসনের মধ্যে আপ ১০৬, বিজেপি ৮৪, কংগ্রেস ৫ ও নির্দল প্রার্থীর জয় ১টি আসনে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা আগেই বলেছিলেন আপের জনমোহিনী নীতির কাছে চুপসে যেতে চলেছে মোদি-শাহের ডবল ইঞ্জিন স্বপ্নের বেলুন।

শেষ পর্যন্ত সেই ভবিষ্যদ্বাণীই মিলে যেতে চলেছে। দিল্লি বিধানসভা দীর্ঘদিনই হাতছাড়া গেরুয়া শিবিরের। এবার পুরসভাতেও হেরে গেলে চাপ আরও বাড়বে বিজেপির উপরে।

পুরভোটের আগে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন আপ নেতা সত্যেন্দ্র জৈন। তাঁকে নিয়ে একাধিক ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে দেথা গিয়েছে, জেলে তিনি বিশেষ সুবিধা পাচ্ছেন। আপের অভিযোগ, কুৎসার রাজনীতি করেছিল বিজেপি। কিন্তু গেরুয়া শিবিরের সেই কৌশল দিল্লিবাসী যে ভালভাবে নেয়নি, তা স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে এখনও পর্যন্ত প্রকাশিত ভোটের ফলাফলে।

গুজরাটে গেরুয়া ঝড়ে আগাম পূর্বাভাস দিয়েছিল প্রায় সব বুথফেরত সমীক্ষা। হিমাচলেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে বিজেপি-কংগ্রেসের মধ্যে। দুই রাজ্যে তৃতীয় শক্তি হিসেবে উত্থান হতে পারে কেজরিওয়ালের দলের। কিন্তু এমন অবস্থায় দিল্লি পুরভোটের বুথফেরত সমীক্ষা মিলে যেতে থাকায় নিঃসন্দেহে গেরুয়া শিবির বড় অস্বস্তিতে পড়ল।
তথ্যসূত্র; সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ