দুর্গাপুরে আজান দেয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ।। মোয়াজ্জেমসহ একই পরিবারের আহত চার

আপডেট: জুন ২৯, ২০১৭, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

দুর্গাপুর প্রতিনিধি


রাজশাহীর দুর্গাপুরে আজান দেয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একই পরিবারের নারীসহ ৪ জন আহত হয়েছেন। আহতদের দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত সোমবার দুর্গাপুর উপজেলার গোপালপুর সোনারপাড়া জামে মসজিদে জোহরের আজানের মধ্যে একই এলাকার আহাদ নামের এক মুসল্লি এসে তাকে আজান দিতে বাধা দেয়। এসময় মসজিদের মোয়াজ্জেম আতাবুরের কেন আজান দেয়া হবে না তা জানতে চাইলে তাকে মারপিট শুরু করে । এর মধ্যে আতাবুরের বাড়ির লোকজন এগিয়ে আসলে আহাদের লোকজন আতাবুরের বাড়ির লোকজন আতাবুরকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারপিট শুরু করে।
এ ঘটনায় উভয় পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষ বেধে যায়। এতে একই পরিবারের নারীসহ ৪জন আহত হয়। আহতরা হলেন, গোপলাপুর গ্রামের মেসের আলীর ছেলে আবদুুল গফুর (৬০) ও স্ত্রী টুম্পা বেগম (৫২) ফারহাজ প্রামানিকের ছেলে নুর মোহাম্মদ (৬২) ও তার ছেলে আতাবুর রহমান (৩৫)। আহতদের মাধ্যে নূর মোহাম্মদ ও আতাবুর রহমানকে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
রামেক হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সোহেল আহম্মদ জানান, আতাবুর হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধিন রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তিনি আরো জানান, আতাবুরের মাথায় বড় ধরনের আঘাত রয়েছে এবং বেশ রক্তক্ষরণ হয়েছে। জ্ঞান না ফেরা পর্যন্ত তার অবস্থা সর্ম্পকে তেমন কিছু বলা যাচ্ছে না।
দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ(ওসি) রুহুল আলম জানান, খবর পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক, তবে এঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ কোন প্রকার অভিযোগ করেনি। তবে এলাকার পরিবেশ স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ