দুর্গাপুরে ইউপি সদস্যর বিরুদ্ধে শিক্ষার্থী অপহরণ : থানায় মামলা

আপডেট: নভেম্বর ৩০, ২০২৩, ১০:০০ অপরাহ্ণ


দুর্গাপুর ( রাজশাহী) প্রতিনিধি:


দুর্গাপুরে নবম শ্রেণি পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে অপহরণের পরে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে মাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে। গতকাল বুধবার উপজেলার চৌবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে

এর আগে, বুধবার (২৯নভেম্বর ) রাতে শিক্ষার্থীকে অপহরণ অভিযোগ তুলে দুর্গাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে ওই শিক্ষার্থীর মা। পরে রাতেই দুর্গাপুর থানা পুলিশ আমিনুল ইসলামের বাড়ি থেকে ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার সকালে আদালতের মাধ্যমে শিক্ষার্থীর ৬৪ ধারা জবানবন্দী গ্রহন করেন। পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার( ওসিসি) তে শারীরিক পরীক্ষার জন্য পাঠান।

মামলার বরাত দিয়ে ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, গত বুধবার (২৯ নভেম্বর) বিকালে ওই শিক্ষার্থী বাড়ির সামনের রাস্তা দাঁড়িয়ে ছিল। সেখান থেকে তাকে জোর করে তুলে নিয়ে যায় মাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আমিনুল ইসলাম। পরিবার ও স্থানীয় লোকজন চারিদিকে খোঁজাখুঁজি করেও কোন সন্ধান করতে পারেনি। এই অবস্থায় শিক্ষার্থীর মা দুর্গাপুর থানা মামলা করতে গেলে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার প্রভাবে মামলা নিতে চায়না ওসি। পরে দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল করিমের সহযোগিতা শিক্ষার্থীর মা থানায় মামলা করেন বলে জানান।
আরো জানান,আমিনুল ওই শিক্ষার্থীকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে বলেও জানান শিক্ষার্থীর মা।

দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) নাজমুল হক বলেন, মামলার পরপরই আমরা অভিযান চালিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করেছি। বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ হেফাজতে ‘ আদালতে পাঠানো হয়েছে।এমনকি আসামিকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ