দুর্গাপুরে প্রতিবন্ধীর স্ত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আদালতে মামলা

আপডেট: জানুয়ারি ১৫, ২০১৭, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

দুর্গাপুর প্রতিনিধি


রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার নওপাড়া গ্রামে প্রতিবন্ধীর স্ত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে আপোষের চেষ্টা চালানো হলেও শেষ পর্যন্ত এ ঘটনায় রাজশাহীর আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভিকটিম নারী নিজেই বাদী হয়ে রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ২ মামলাটি দায়ের করেছেন। আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলার এজাহারে বর্ণিত অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার নওপাড়া গ্রামের শারীরিক প্রতিবন্ধী সামছুল হকের স্ত্রী আকলিমা বেগমকে (৪২) মাঝেমধ্যেই কুপ্রস্তাব দিতেন প্রতিবেশী সেকেন্দার আলীর ছেলে কাউছার আলী (৩৫)। বিষয়টি ওই নারী তার স্বামীকে জানালে ওই নারীর স্বামী কাউছারকে সাবধান করলে কিছুদিন তার অত্যাচার বন্ধ থাকার পর আবারো একই কাজ করতে থাকে। ঘটনার দিন গত ৩০ ডিসেম্বর রাত ১০ টার দিকে বাড়ির সকলের অগোচরে ওই নারীর বড় ছেলের ঘরে প্রবেশ করে কাউছার। পাশের ঘরেই ওই নারীর প্রতিবন্ধী স্বামী শুয়ে ছিল। বড় ছেলে ওই রাতে বাড়িতে না থাকায় ওই নারী তার ছেলের ঘরেই শুয়ে ছিল। এসময় কাউছার তার ঘরে প্রবেশ করে তার মুখ মাফলার দিয়ে বেধে ফেলে তাকে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। এসময় ওই নারী ও তার স্বামীর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে পরনের কাপড় চোপড় ফেলে ঘটনাস্থল থেকে পালিয় যায় কাউছার। এ ঘটনায় গ্রাম্য সালিশে আপোষের চেষ্টা চালানো হলেও প্রভাবশালী কাউছারের হুমকী-ধামকীতে তা ভেস্তে যায়। বাধ্য হয়ে গত ২ জানুয়ারি ওই নারী থানায় অভিযোগ নিয়ে গেলে তাকে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেয় পুলিশ। অবশেষে এ ঘটনায় ওই নারী নিজেই বাদী হয়ে কাউছার আসামি করে গত ৮ জানুয়ারি রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ২ এ মামলা করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ