দুর্গাপুরে মেয়াদোর্ত্তীর্ণ ‘ডাকপ্লে’ ভ্যাকসিন ব্যবহারে মারা গেছে ৩০০ হাঁস

আপডেট: জানুয়ারি ২৩, ২০২০, ১:০২ পূর্বাহ্ণ

দুর্গাপুর প্রতিনিধি


দুর্গাপুর প্রাণিসম্পদ অফিসের মেয়াদোত্তীর্ণ ‘ডাকপ্লে’ ভ্যাকসিন ব্যবহারে হান্নান নামের এক খামারির প্রায় ৩শ হাঁস মারা গেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন খামারি। গতকাল বুধবার উপজেলার সিংগা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।
খামার মালিক হান্নান জানান, ২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর দাতা উন্নয়স সংস্থা ‘সচেতন’ এর অর্থনৈতিক সহায়তায় ৫৫০টি হাঁসের বাচ্চা নিয়ে খামার শুরু করি। হাঁসের খামারে প্রথম বাচ্চা নিয়ে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে পরামর্শ চাই। প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের কর্মরত চিকিৎসক ‘ডাকপ্লে’ নামক হাঁসের মারাত্মক রোগের জন্য সরকারি ডাকপ্লে ভ্যাকসিন ব্যবহারের পরামর্শ দেন। তার পরামর্শ মতে ২৫দিনের মাথায় আমি অফিস থেকে সরকার ভ্যাকসিন ক্রয় করে খামারে ব্যবহার করি। ভ্যাকসিন ব্যবহারের পর থেকে থামারের হাঁস মারা যেতে থাকে। এসময় আমি প্রাণিসম্পদ অফিসের কর্মরত চিকিৎসকে জানাই। এসময় তিনি বলেন ডাকপ্লে ভ্যাকসিনটি হাঁসের হাড়ে লেগেছে। তাই দুএকটি হাঁস মারা যেতে পারে। তার কথামত আমি খামারের কার্যক্রম পরিচালনা করতে থাকি। এরমধ্যে হাঁসের বয়স ৪২দিন হলে ডাকপ্লের দ্বিতীয় ডোজ ভ্যাকসিন ব্যবহার করি। এ ভ্যাকসিন ব্যবহারের সঙ্গে সঙ্গে খামারের প্রায় ৩৫০টি হাঁস মারা যায়। এতে মারা যাওয়া হাঁসের প্রায় দেড় লাখ টাকা ক্ষতি হয় বলে ধারনা করছি।
এদিকে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা.আবদুল কাদের জানান, সরকারি ভ্যাকসিনের মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তবে হাঁসের অন্য কোনো রোগের কারণে মারা যেতে পারে। তবে আমরা যাচাই বাছাই করে দেখি খামারের হাঁসগুলো কী কারণে মারা গেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ