দুর্গাপুরে মোবাইল তুলতে গিয়ে মারা যাওয়া রাসেল পেল জিপিএ-৪.২৮

আপডেট: June 1, 2020, 9:17 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাসেল রানা- সোনার দেশ

মোবাইল তুলতে গিয়ে শৌচাগারের ট্যাংকে পড়ে মারা যাওয়া রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার রাসেল রানা ওরফে সোহাগ এবারের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৪.২৮ পেয়েছে। রোববার (৩১ মে) প্রকাশিত এই ফল আনন্দের বদলে বিষাদে ভাসিয়েছে চা-দোকানি বাবা আবদুল কুদ্দুসকে।

২৮ মে সন্ধ্যায় উপজেলার কিসমত গনকৈড় ইউনিয়নের কয়ামাজমপুর উত্তরপাড়ায় পড়ে যাওয়া মোবাইল ফোন তুলতে গিয়ে শৌচাগারের ট্যাংকে ডুবে যায় রাসেল। ছেলেকে তুলতে গিয়ে ডুবে যান তা মা ফিরোজা বেগম ওরফে শাহিনা। স্ত্রী-সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় আবদুল কুদ্দুস।

রাসেল কয়ামাজমপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০২০ সালে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল। বাড়ি লাগোয়া দোকানে চা বিক্রি করেন আবদুল কুদ্দুস। পড়াশোনার পাশাপাশি বাবাকে সহায়তা করতো রাসেল।

প্রতিবেশীরা জানান, গত বৃহস্পতিবার বিকেলেও বাবার সঙ্গে চায়ের দোকানে ছিল রাসেল। সন্ধ্যা ৭টার দিকে প্রকৃতির ডাকে শৌচাগারে যায়। ওই সময় অসাবধানতাবশত মোবাইলটি শৌচাগারের গর্তে পড়ে যায়। ফিরে গিয়ে দোকান থেকে দুটি পলিথিন নিয়ে আসে রাসেল। দুই হাতে শৌচাগারের ঢাকনা তুলে মোবাইল ফোন তোলার চেষ্টা করছিল সে। নিচু হতে হতে একপর্যায়ে গর্তের ভেতর ডুবে যায় রাসেল।
বিষয়টি টের পেয়ে মা শাহিনা গিয়ে ছেলের পা ধরে টেনে তোলার চেষ্টা করেন। কিন্তু এ সময় গর্তে পড়ে যান মাও। টের পেয়ে স্থানীয়রা মা ও ছেলের নিথর দেহ গর্ত থেকে তুলে আনেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ